Mon, 19 Nov, 2018
 
logo
 

ব্যান্ড ৫২‘র কর্ণধার শাহ নিজাম ' বাচ্চু ভাই দেশকে অনেক কিছু দিয়ে গেছে'

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: আইয়ুব বাচ্চুর মৃত্যুতে সংগীত অঙ্গন শোকে মুহ্যমান। বৃহস্পতিবার (১৮ অক্টোবর) সকালে জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী আইয়ুব বাচ্চু ইন্তেকাল করেন। তাঁর বয়স হয়েছিল ৫৬ বছর। আইযুব বাচ্চুর মৃত্যুতে অনেকেই শোক প্রকাশ করেছেন।
আইয়ুব বাচ্চু ১৯৬২ সালের ১৬ আগস্ট তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তানের (বর্তমান বাংলাদেশ) চট্টগ্রাম জেলায় জন্মগ্রহণ করেন।সঙ্গীতজগতে তার যাত্রা শুরু ফিলিংসের মাধ্যমে ১৯৭৮ সালে। তিনি তার শ্রোতা-ভক্তদের কাছে এবি (AB) নামেও পরিচিত। তার ডাক নাম রবিন। মূলত রক ঘরানার কন্ঠের অধিকারী হলেও আধুনিক গান, ক্লাসিকাল সঙ্গীত এবং লোকগীতি ঘরানায়ও তিনি কাজ করেছেন।
 
(১৬ আগস্ট ১৯৬২ - ১৮ অক্টোবর ২০১৮) একজন বাংলাদেশী গায়ক, গিটারবাদক, গীতিকার, সুরকার, ও প্লেব্যাক শিল্পী আইয়ুব বাচ্চু আর নেই তার এই মৃত্যুতে সংগীত অঙ্গন শোকে মুহ্যমান
 
এই সম্পর্কে মহানগর আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক  এবং ব্যান্ড ৫২‘র কর্ণধার শাহ নিজাম বলেন, বাচ্চু ভাইয়ের সঙ্গে আমার সম্পর্ক ছিলো অনেক দিনের, সেই ১৯৮৮ থেকে। আমাদের ব্যান্ড ছিলো তো বাচ্চু ভাই খুব ভালো ইংরেজ গান গাইতো। বাচ্চু, নাসির আলি, তপন চৌধুরী এক সঙ্গে ছিলেন। পরবর্তিতে তো বাচ্চু ভাই আবার নতুন করে একটা গ্রুপ করছে “এল আর বি”। তো সংগীত জগতে উনি অত্যান্ত একজন ভালো মানুষ ছিলেন। সংগীত শিল্পীদের মধ্যে এতো ভালো মানুষ খুজে পাওয়াটা কঠিন। তিনি এতো বড় মাপের শিল্পী ছিলেন, কিন্তু ওনার আচার-আচরণ বা ওনার ব্যাবহার দেখলে মনে হতো না যে তিনি এতো বড় মাপের শিল্পী। তিনি এতো বড় মাপের একজন ব্যাক্তি ছিলেন তবুও সেই ১৯৮৮ হতে তার সঙ্গে ‘আমার ওয়েক আপ’ ব্যান্ড ছিলো এবং তার গান শুনার সুযোগ হয়েছে আমার। আর্মি স্টেডিয়াম, ঢাকা ইউনিভার্সিটিসহ  আরো অনেক জায়গায় অনেক পোগ্রাম আমরা একসঙ্গে করেছিলাম। আমি হঠাৎ যখন খবরটা সকালে পাই আমি খুব ব্যাথিত হয়েছি। দেশের একটা উজ্জল নক্ষত্র এ দেশ হারিয়েছে।আমি তার রুহের মাগফিরাত কামনা করি।তিনি দেশকে অনেক কিছু দিয়ে গেছেন তা ভুলবার নয়।

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম