Thu, 19 Jul, 2018
 
logo
 

তারা যুবলীগ ছাড়বেন কবে

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: যুবলীগের জেলা ও থানা কমিটির শীর্ষ পদে থাকতেই নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের গুরুত্বপূর্ণ পদে আসীন হয়েছেন কয়েকজন। এ দায়িত্ব পাওয়ার চার মাস চললেও এখন পর্যন্ত তারা আগের পদ ছাড়েননি।

দলীয় সূত্র জানায়, ২০১৬ সালের ৯ অক্টোবর কেন্দ্র থেকে আবদুল হাইকে সভাপতি, সেলিনা হায়াৎ আইভীকে সিনিয়র সহ সভাপতি ও আবু হাসনাত মো. শহীদ বাদলকে সাধারণ সম্পাদক করে ৩ সদস্যের নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের আংশিক কমিটি ঘোষণা করা হয়। এর মধ্যে বাদল নারায়ণগঞ্জ জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক পদেও আছেন।

এর এক বছর পর ২০১৭ সালের মার্চ মাসে পূর্নাঙ্গ কমিটি অনুমোদনের জন্য কেন্দ্রে পাঠানো হয়। ২৫ নভেম্বর জেলা আওয়ামীলীগের পূর্নাঙ্গ কমিটির অনুমোদন দেন দলীয় সভানেত্রি শেখ হাসিনা। পূর্নাঙ্গ কমিটিতে বাদল ছাড়া আরও দুই যুবলীগ নেতা সুযোগ পান। তাদের মধ্যে একজন হলেন জেলা যুবলীগের সভাপতি আব্দুল কাদির। যিনি জেলা আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি হয়েছেন। অপরজন হলেন ফতুল্লা থানা যুবলীগের সভাপতি মীর সোহেল আলী। জেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক পদ পেয়েছেন।

কাদির, বাদল ও সোহেল জেলা আওয়ামীলীগের গুরুত্বপূর্ণ পদ পেলেও এখন পর্যন্ত তারা যুবলীগের পদ ছাড়েননি বা এ সংক্রান্ত কোন ঘোষণাও দেননি। যুবলীগের কয়েকজন নেতা আক্ষেপ করে বলেন, এক ব্যক্তির একাধিক পদ দখল করে রাখার সংস্কৃতি আগে আওয়ামীলীগে ছিলোনা। এভাবে পদ আকঁড়ে রাখলে নেতাকর্মীদের মধ্যে অসন্তোষ সৃষ্টি হয়। নতুন নেতৃত্বের এগিয়ে যাওয়ার পথেও অন্তরায় বলে মনে করেন কেউ কেউ।

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম