Mon, 23 Oct, 2017
 
logo
 

ভালো কাজের উৎসাহ দরকার সর্বত্র

সীমান্ত প্রধান: পুরস্কার কখনোই ভাত-মাছ এনে দেয় না। তারপরও পুরস্কার মানুষের জীবনে সব থেকে বড় প্রাপ্তি, কাজের স্বীকৃতি। একটা ভালো কাজের জন্য সামগ্রিকভাবে স্বীকৃতি প্রাপ্তিটা আরও কিছু ভালো কাজ করতে উৎসাহিত করে। আবার কেউ যদি ভালো কাজ করার পরও স্বীকৃতি না পায়, তাহলে সে ভালো কাজে উৎসাহ হারিয়ে ফেলে।
ধরে নেয়া যাক কনেস্টেবল শের আলীর কথা। যিনি একটি দুর্ঘটনাস্থান থেকে একটি বাচ্চা মেয়েকে উদ্ধার করে হাসপাতালের দিকে ছুটছেন আর হাউমাউ করে কাঁদছিলেন। সেই দৃশ্য সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে পুরো দেশব্যাপী আলোড়ন তুলে। ফলশ্রুতিতে শের আলী পেয়েছিলেন রাষ্ট্রপতি পুলিশ পদক (পিপিএম)।
 
তাকে ভালো কাজের স্বীকৃতি দেয়ায় তিনিও উৎসাহিত হচ্ছেন আরও অনেক ভালো কাজ করতে। সম্প্রতি ট্রাফিক কনস্টেবল এনামুল হক সড়ক দুর্ঘটনায় মারা যান। তার ১১ মাসের এক সন্তান। শের আলী সারাদেশে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা তার ব্যাচমেটদের কাছ থেকে সহযোগিতার আহ্বান করেন। সবাই সাড়া দেন। মোট টাকা উঠে আসে ১ লাখ ৯০ হাজার। টাকাটা এই শিশু সন্তান তাহসিনের নামে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ শাখার সোনালি ব্যাংকে এফডিআর করে দেন শের আলী। তাহসিন সাবালক না হওয়া পর্যন্ত এ টাকা কেউ তুলতে পারবেন না।
 
এছাড়াও সম্প্রতি সড়ক দুর্ঘটনায় একজন বৃদ্ধা আহত অবস্থায় সড়কে পড়েছিলেন। শের আলী তাকে উদ্ধার করে হাসপাতাল ভর্তি করান এবং তার পরিবারকে খবর দেন। পাশাপাশি এই বৃদ্ধার খবর তিনি প্রতিদিনই নিয়েছেন ডিউটি শেষ করে। সম্ভবত মানবতার জন্য তার এই স্বেচ্ছাসেবি শ্রম দীর্ঘদিন ধরেই চলবে। আর এ উৎসাহটা যুগিয়েছে তার কাজের স্বীকৃতি। তাই প্রতিটি ভালো কাজেরই স্বীকৃতি দেয়া উচিৎ। তাহলে অন্যরাও ভালো কাজে এগিয়ে আসবে।
 
ভালো কাজগুলোর স্বীকৃতি আমাদের সমাজে তেমন একটা দেয়া হয় না। যার কারণে মানুষও উৎসাহিত হয়ে উঠে না। সর্বমহল থেকে ভালো কাজের স্বীকৃতি প্রদান উচিৎ। সেটি হোক পুলিশের ক্ষেত্রে, হোক সিভিল ডিফেন্সের ক্ষেত্রে। মনে রাখতে হবে, ভালো কাজ হোক আর মন্দ কাজ হোক, সর্বোপরি উৎসাহটা যে কোনো কাজকেই সামনের দিকে এগিয়ে নিতে নিয়ামক হিসেবে অত্যন্ত ফলপ্রসূ। সে ক্ষেত্রে মন্দ কাজটাকে নিরুৎসাহিত করা এবং ভালোকাজটাকে উৎসাহিত করা প্রতিটি মানুষেরই দায়িত্ব বলে মনে করি।
 
লেখক: হেড অব নিউজ লাইভ নারায়ণগঞ্জ

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম