Mon, 16 Jul, 2018
 
logo
 

মিশনে নেমেছে মহিলা কলেজ: শুরু অর্ধকোটি টাকার ড্রেস বাণিজ্য

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: মাকে নিয়ে প্রায় ১৪ কিলোমিটার দূর থেকে নারায়ণগঞ্জের চাষাঢ়ায় এসেছেন একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি প্রত্যাশি সুমাইয়া আক্তার (ছদ্মনাম)। ভর্তির ফি ২ হাজার ৭‘শ ৮৪ টাকা হিসেব করে ৩ হাজার টাকা নিয়ে এসেছিলেন তারা।

কিন্তু এসে শুনছেন, ড্রেস ও জুতার জন্য আরো ১ হাজার ৭‘শ ৫০ যোগ করে মোট লাগবে ৪ হাজার ৫‘শ ৬৪ টাকা। তাই পুনরায় বাড়ি ফিরত যেতে হয়েছে ওই শিক্ষার্থী ও তার মাকে।

মিশনে নেমেছে মহিলা কলেজ: শুরু অর্ধকোটি টাকার ড্রেস বাণিজ্য

বুধবার (২৭ জুন) দুপুরে নগরীর প্রাণ কেন্দ্র চাষাঢ়ায় অবস্থিত সরকারি মহিলা কলেজের চিত্র এটি।

এসময় ক্ষোভ প্রকাশ করে এক অভিভাবক নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, ড্রেস এবং বাটার নীল কেড্স থেকে ধরে সব কিছুই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে নেওয়া হলেও বাহির থেকে নিতে হচ্ছে শুধু শিক্ষাটাই। ছাত্রছাত্রীদের কোচিং ছাড়া পাশ করা এখন অসাধ্য হয়ে পড়েছে!

নারায়ণগঞ্জ সরকারি মহিলা কলেজের প্রফেসর মো. দাবিউল রহমান জানান, ২০১৮ সালে সকল বিভাগে ২ হাজার ৮‘শ শিক্ষার্থী ভর্তির সুযোগ পাবে। তার মধ্যে বিজ্ঞান বিভাগে ৫ ‘শ ৫০ জন, ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগে ১ হাজার ১ ‘শ ৫০ জন ও মানবিক বিভাগে ১ হাজার ১ ‘শ জন শিক্ষার্থী ভর্তি হতে পারবে।

গত ২৫ জুন কলেজটির অধ্যক্ষের স্বাক্ষরিত এক জরুরী বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, বিজ্ঞান খাতে ভর্তি ফি ২ হাজার ৭ ‘শ ৮৪ টাকা। এছাড়া মানবিক ও ব্যবসায় শিক্ষা শাখায় ২ হাজার ৫‘শ ৮৪ টাকা করে নির্ধারণ করা হয়েছে। সাথে শিওরক্যাশের চার্জ বাবদ ৩০ টাকা ও নির্ধারিত ড্রেস এবং বাটার নীল কেড্স বাবদ আরো ১ হাজার ৭ ‘শ ৫০ টাকা দিতে হবে।

মিশনে নেমেছে মহিলা কলেজ: শুরু অর্ধকোটি টাকার ড্রেস বাণিজ্য

নারায়ণগঞ্জ সরকারি মহিলা কলেজের প্রফেসর মো. দাবিউল রহমান ও কলেজটির অধ্যক্ষের স্বাক্ষরিত জরুরী বিজ্ঞপ্তিতে দেওয়া তথ্যের হিসেবে এবছর ২ হাজার ৮‘শ শিক্ষার্থীদের থেকে শুধু ড্রেস এবং বাটার নীল কেড্স বাবদ ৪৯ লাখ টাকার বাণিজ্য করতে নেমেছে নগরীর প্রাণ কেন্দ্রে অবস্থিত সরকারি এ কলেজ কর্তৃপক্ষ।

এবিষয়ে নারায়ণগঞ্জ জেলা শিক্ষা অফিসার মো.শরিফুল ইসলাম জানান, কোন প্রতিষ্ঠান যদি চায় তাহলে নির্দিষ্ট রঙের ড্রেস এবং কেড্স নির্বাচন করতে পারে। তাই বলে ওই প্রতিষ্ঠান থেকেই ড্রেস নিতে হবে এমনটা করা উচিৎ নয়।

অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মো. রেজাউল বারী লাইভ নারায়ণগঞ্জকে জানান, মহিলা কলেজের টাকার বিনিময়ে ড্রেসের বিয়ষটি আমার জানা নেই। তবে অভিযোগের বিষয়ে কথা বলে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম