Sun, 23 Sep, 2018
 
logo
 

ডা. ইকবাল-ডা. দেবাশীষ প্যানেলের একচেটিয়া জয়

বাংলাদেশ মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশন (বিএমএ) নারায়ণগঞ্জ জেলা কমিটির নির্বাচনে একচেটিয়া জয় পেয়েছে ডা. ইকবাল বাহার-ডা. দেবাশীষ পরিষদ। আওয়ামীপন্থী ডাক্তারদের সংগঠন স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের (স্বাচিপ) সরাসরি সমর্থিত এই প্যানেলের ২৩ জনের সবাই জয়লাভ করেছেন।

ভোট গ্রহণের প্রায় ১৪ ঘণ্টা পর শুক্রবার ৭ সেপ্টেম্বর ভোর ৬টার দিকে ফলাফল ঘোষণা করা হয়। তবে কে কত ভোটে জয় পেয়েছে তা জানানো হয়নি। আগামীকাল শনিবার পূর্ণাঙ্গভাবে তা প্রকাশ করা হবে বলে জানান নির্বাচন কমিশনের আহ্বায়ক ডা. সৈয়দ ছামেদুল হক। এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন- নির্বাচন কমিশনের সদস্য ডা. আসাদুজ্জামানসহ অন্যরা।

নির্বাচনে পরাজিত স্বতন্ত্র সভাপতি প্রার্থী ডা. শাহনেওয়াজ চৌধুরী ফলাফল মেনে নিয়ে বিজয়ীদের স্বাগত জানান। তিনি নবনির্বাচিত কমিটির শুভ কামনা করেন।

বিজয়ীরা হলেন- সভাপতি ডা. চৌধুরী ইকবাল বাহার, সহ-সভাপতি ডা. গোলাম মোস্তফা, ডা. বিধান চন্দ্র পোদ্দার, কোষাধ্যক্ষ ডা. শেখ ফরহাদ, সাধারণ সম্পাদক ডা. দেবাশীষ সাহা, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ডা. সামছুদ্দোহা সঞ্চয়, সাংগঠনিক সম্পাদক ডা. সাখাওয়াত হোসেন, বিজ্ঞান বিষয়ক সম্পাদক ডা. কুমার তানসেন, দপ্তর সম্পাদক ডা. ইউসুফ সরকার, প্রচার ও জনসংযোগ সম্পাদক ডা. কামরুল আশরাফ, সমাজকল্যাণ সম্পাদক ডা. অমিত সরকার, সংস্কৃতি ও আপ্যয়ন বিষয়ক সম্পাদক ডা. আমিনুর রহমান, গ্রন্থাগার ও প্রকাশনা সম্পাদক ডা. জহিরুল হক, সদস্য ডা. জিএম ফরহাদ, ডা, জাহাঙ্গীর আলম, ডা. অনিরুদ্ধ ভট্টাচার্য, ডা. এবিএম জহিরুল কাদের ভূইয়া, ডা. তানভীর আহমেদ চৌধুরী, ডা. আমির হোসেন, ডা. তনয় কুমার সাহা, ডা. মতিয়ার রহমান, ডা. আবু শাহেদ শুভ ও ডা. মোহাম্মদ মফিজ উদ্দিন।

এর আগে ৬ সেপ্টেম্বর নারায়ণগঞ্জ রাইফেল ক্লাবে সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত একটানা শান্তিপূর্ণ ও সুষ্ঠু পরিবেশে ভোট গ্রহণ সম্পন্ন হয়। এতে ভোট কাস্ট হয় ৩১৫টি।

নির্বাচনে জয়ী হওয়ার পর ডা. ইকবাল বাহার চৌধুরী জানান, ‘নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএমএ নির্বাচনে কেন্দ্রীয় স্বাচিপ মনোনীত 'ইকবাল-দেবাশীষ' পরিষদ বিপুল ভোটে পূর্ণ প্যানেলে বিজয়ী হয়েছে। এই জয় দল-মত নির্বিশেষে সকল চিকিৎসকের বিজয়। দীর্ঘ ২৫ বছর পর অনুষ্ঠিত এই নির্বাচনে প্রায় ৯৫% ভোটারের উপস্থিতি নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএমএ-কে চিকিৎসা পেশার মর্যাদা সমুন্নত রাখতে আরও বেশি দায়বদ্ধ করবে।’

এদিকে, গত রাতে ভোট গণনা নিয়ে হঠাৎ করেই উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। আওয়ামী লীগ ব্যানারে নির্বাচন করা ডা. আতিকুজ্জামান সোহেল-নিজামউদ্দিন আলী পরিষদের সাধারণ সম্পাদক নিজামউদ্দিন আলী ও যুগ্ম সম্পাদক অলক কুমার সাহা রাত ১১টার দিকে ভোট কেন্দ্র থেকে উত্তেজিত অবস্থায় বেরিয়ে এসে জানান, ‘ভেতরে ভোট গণনা নিয়ে প্রতিপক্ষের লোকজন তাদের হেনস্তা করেছে। এ কথা শুনে তাদের প্যানেলের ডা. আতিকুজ্জামান সোহেল অনুসারীদের নিয়ে মারমুখি হয়ে কেন্দ্রের ভেতরে যেতে চান। এ সময় তারা বাধা পেয়ে সেখানে থাকা প্রতিপক্ষ প্যানেলের ডা. ইকবাল বাহার চৌধুরীর ওপর অতর্কিত হামলা চালায়। একপর্যায়ে তারা ডা. ইকবালকে বেধড়ক মারধর করে। এ সময় তাকে রক্ষা করতে এসে আরো কয়েকজন ডাক্তার এবং ইকবাল বাহারের আত্মীয় সাদা পোশাকে থাকা ঢাকা রেঞ্জের এএসপি মিজানুর রহমান মারধরের শিকার হন। পরে ডা. আতিকুজ্জামান সোহেল ক্লাব থেকে বের হবার পথে রাস্তায় ডা. ইকবাল বাহারের গ্রুপের দপ্তর সম্পাদক পদপ্রার্থী ডা. ইউসুফ আলী সরকারের ওপর হামলে পড়েন। এ সময় ডা. ইউসুফকে রাস্তায় ফেলে এলোপাথাড়িভাবে পেটায় ডা. সোহেল।

খবর পেয়ে মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাহ নিজাম, সাংগঠনিক সম্পাদক জাকিরুল আলম হেলালসহ দলের নেতৃবৃন্দ ক্লাবে প্রবেশ করলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে। এ পর্যায়ে ক্লাবে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়। এ পরিস্থিতিতে ৩০ মিনিট ভোট গণনা বন্ধ রাখা হয়। পরে ফতুল্লা মডেল থানার ওসি মঞ্জুর কাদেরের উপস্থিতিতে ফের ভোট গণনা শুরু হয়।

সে সময় তাৎক্ষণিক এক প্রতিক্রিয়ায় ডা. ইকবাল বাহার জানান, ‘প্রতিপক্ষ প্যানেল নিশ্চিত পরাজয় আচ করতে পেরে পরিকল্পিতভাবে বহিরাগত লোকজন নিয়ে আমাদের ওপর হামলা চালিয়েছে।’

উল্লেখ্য, দীর্ঘ ২৫ বছর পর ভোট দিতে পেরে নবীন-প্রবীন ভোটাররা উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন। বিএমএ জেলা কমিটির সর্বশেষ ভোট হয়েছিলো ১৯৯৩ সনে। দীর্ঘ ২ যুগে বহুবার নির্বাচন হলেও ভোট প্রদানের কোন সুযোগ ছিল না। প্রার্থীরা সবাই বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। আইনি কোন জটিলতা না থাকলেও কোন এক অদৃশ্য কারণে দীর্ঘদিন ভোটাধিকার থেকে বঞ্চিত ছিলেন বিএমএ’র জেলা সদস্যরা।

নির্বাচনে ভোট প্রক্রিয়া বাস্তবায়নের ফল হিসেবে ডা. ইকবাল বাহার-ডা. দেবাশীষ সাহা পরিষদ পূর্ণ জয় পেয়েছে বলে মনে করেন অভিজ্ঞ মহল। তারুণ্য নির্ভর এই প্যানেলের ২৩ প্রার্থীর ২১ জনই সরকারি ডাক্তার। জেলার দুটি বড় সরকারি হাসপাতাল ও উপজেলা স্বাস্থ্য কমেপ্লক্সে তারা কর্মরত।

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম