Tue, 17 Jan, 2017
 
logo
 

না’গঞ্জে ভুল চিকিৎসা মৃত্যুর সংখ্যা বাড়ছে, বাঁচতে এসে প্রাণ হারাচ্ছে রোগীরা

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জ নগরীর ক্লিনিকগুলোতে ভুল চিকিৎসা রোগীদের পিছু ছাড়ছে না। প্রতিনিয়তই ঘটে যাচ্ছে ভুল চিকিৎসায় মৃত্যু বা অঙ্গহানির ঘটনা। ডাক্তারদের অদক্ষতা বা অবহেলায় অহরহই প্রাণ দিতে হচ্ছে সাধারন মানুষকে।

দুঃসহ যন্ত্রণা আর কষ্ট লাঘব থেকে পরিত্রাণ পাওয়ার আশায় থাকা মানুষদের মিলছে ‘মৃত্যু’। অধিকাংশ ক্লিনিকেই নেই পর্যাপ্ত পরিমাণ চিকিৎসক, নেই সেবিকা, ওয়ার্ড বয়, সার্বক্ষনিক ক্লিনার। কিছু কিছু ক্লিনিকে শুধুমাত্র বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের নাম সাইনবোর্ড দেখা গেলেও কিন্তু বাস্তবে তাদের দেখা মিলে না।

রোগির সেবা নয় বরং ব্যবসা করার লক্ষ্যেই নারায়ণগঞ্জে গড়ে উঠেছে ক্লিনিক ও প্যাথোলোজিক্যাল সেন্টারগুলো। এসব ক্লিনিক গুলো জনগণের সাথে প্রতারণা ও সরকারের আইনের  প্রতি বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে তাদের ক্লিনিক ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে। অথচ এসব ঘটনায় গত কয়েক বছরেও নেই কোন বিচারের নজীর। ঘটনা ঘটার সাথে সাথে শুধুমাত্র গ্রেফতারের মাধ্যমেই মূল ঘটনার ইতি ঘটে যায়। এ সংক্রান্ত মামলার বেশিরভাগই আলো মুখ দেখে না। পরবর্তীতে স্বজনদের হাহাকার আর আহাজারী করা ছাড়া আর কিছুই করার থাকে না।

গত ২বছরে জেলা শহরের বিভিন্ন প্রাইভেট ক্লিনিকে ভূল চিকিৎসায় ৪ প্রসুতি মৃত্যু হয়েছে। এছাড়াও গত কয়েক মাসে ভুল চিকিৎসার পরিসংখ্যানে দেখা গেছে, গত মে মাসে সিদ্ধিরগঞ্জে একটি প্রাইভেট ক্লিনিকে সিজারিয়ান অপারেশন কালে ডাক্তারের ভূলের কারনে অতিরিক্ত রক্তক্ষরনে আন্না বেগম (২৩) নামে এক প্রসুতির মৃত্যুর ঘটনা ঘটে।
গত ৩০ আগস্ট মঙ্গলবার দুপুরে নগরীর পপুলার ডায়াগনষ্টিক সেন্টারে ভুল চিকিৎসায় সাহাবুদ্দিন নামে একজনের মৃত্যুর ঘটনা ঘটে। নিহতের স্বজনরা দাবি করেন হাসপাতালে নিয়ে আসার পর নিওরোলজি বিভাগের একজন চিকিৎসক প্রথমে তাকে ভুল স্থানে ইনজেকশনের সুচ প্রবেশ করান। এর পরেই তিনি মারা যান।
গত ৩ জুলাই নারায়ণগঞ্জে এক ডাক্তারের ভুল চিকিৎসায় বাক ও স্মৃতি শক্তি হারিয়েছে সরকারী তোলারাম কলেজের ২য় বর্ষের ছাত্র সাকিব হোসেন। নাকে অপারেশনের পর থেকে তার এই করুণ দশা হয়েছে বলে জানায় সাকিবের পরিবার।
সর্বশেষ গত ২৩ অক্টোবর নারায়ণগঞ্জ নগরীর পলি ক্লিনিকে ডাক্তার ও নার্সদের স্বপ্না রানী নামে এক প্রসূতির মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে।

রোগীদের স্বজনদের অভিযোগ ডাক্তাররা রোগী দেখার সময় মাত্রাতিরিক্ত অবহেলা করে থাকে। যার ফলে এই অনাকাঙ্কিত মৃত্যুর ঘটনা ঘটে। তবে ডাক্তাররা বলেন ভিন্ন কথা। তাদের মতে, চিকিৎসা একটি মহৎ পেশা ও সেবাধর্মী যা মর্যাদাকর। আমরা সবসময় চেষ্টা করি রোগীদের সর্বোচ্চ সেবা দিতে। কোন সময় চেষ্টার ক্রুটি রাখা হয় না।

নারায়ণগঞ্জ জেলা সিভিল সার্জন আশুতোষ দাশ লাইভ নারায়ণগঞ্জকে জানান, ডাক্তারদের অবহেলার অভিযোগে যেসব মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে সবগুলো ঘটনার তদন্ত করা হয়েছে এবং সেই সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম ২৪