Tue, 11 Dec, 2018
 
logo
 

না.গঞ্জে ২১ অর্থনৈতিক মুক্তিযোদ্ধাকে কর অঞ্চলের সম্মাননা

গোলাম রাব্বি, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: প্রবেশ পথে লাল গালিচা, নানা রঙের বেলুনে সাজানো হয়েছে গেইট। মঞ্চে রং বেরঙের ফুল। সামনেই সারি সারি চেয়ারে অধির অপেক্ষায় বসে আছে বিভিন্ন পর্যায়ের লোকজন। ইতোমধ্যেই এসে পড়েছে অতিথি ও সাংবাদিকরা। এখন শুধুই আনুষ্ঠানিকতা।

সোমবার (১২ নভেম্বর) সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোর্ডের পাশে অবস্থিত আমন্ত্রণ কনভেনশন সেন্টারে এচিত্র দেখা যায়। পরে ১১টার দিকে কোরআন তেলওয়াত, গীতাপাঠ ও বক্তব্যের পর্ব শেষে এক এক করে ঘোষণা করা হয় অর্থনৈতিক মুক্তির বর্তমান যোদ্ধাদের নাম।

না.গঞ্জে ২১ অর্থনৈতিক মুক্তিযোদ্ধাকে কর অঞ্চলের সম্মাননা

পরে নারায়ণগঞ্জ কর অঞ্চিলের পক্ষ থেকে ওই অর্থনৈতিক মুক্তিযোদ্ধাদের হাতে পুরস্কার তুলেদেন বিকেএমইএ’র সভাপতি ও এফবিবিসিআই’র পরিচালক একেএম সেলিম ওসমান।

নারায়ণগঞ্জ কর অঞ্চলের কর কমিশনার রনজীত কুমার সাহার সভাপতিত্বে এসময় বিশেষ অতিথি হিসেবে পাশে ছিলেন জেলা প্রশাসক রাব্বী মিয়া, পুলিশ সুপার আনিসুর রহমান, চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রিজের সভাপতি খালেদ হায়দার খান কাজল প্রমুখ্য।

নারায়ণগঞ্জ কর অঞ্চল থেকে জানা যায়, এবার সরকার ঘোষিত জেলা ভিত্তিক সর্বোচ্চ ও দীর্ঘ সময় আয়কর প্রদানকারী ২১ করদাতাকে পুরস্কারের ঘোষণা করা হয়। এর মধ্যে সিটি করপোরেশন, নারায়ণগঞ্জ ও মুন্সীগঞ্জ জেলা থেকে ৭ জন করে পুরস্কৃত করা হয়েছে। এদের কাউকে পুরস্কৃত করা হয়েছে দীর্ঘ সময় কর প্রদানের জন্য, কাউকে আবার সর্বোচ্চ কর প্রদানের জন্য।

না.গঞ্জে ২১ অর্থনৈতিক মুক্তিযোদ্ধাকে কর অঞ্চলের সম্মাননা

এর আগে পুলিশ সুপার আনিসুর রহমান বলেন, আমরা ‘৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধ দেখিনি। আমরা দেখেছি আপনাদের। জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আপনাদের সহযোগীতায় আজ দেশ উন্নয়নের মহাসড়কে এসেছে। আমার বিশ্বাস খুব শিঘ্রই বাংলাদেশ উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত হবে।

জেলা প্রশাসক রাব্বী মিয়া বলেন, আমি আয়কর প্রদানের মাধ্যমে পরবর্তী প্রজন্মের জন্য একটি উন্নত বাংলাদেশ রেখে যাওয়ার স্বপ্ন দেখি। যারা আয়কর দিচ্ছেন, তারা জাতীয় অর্থনীতির নিউক্লিয়াস। নিউক্লিয়াস অর্জনে অগ্রণী ভূমিকা পালনের জন্য নারায়ণগঞ্জ কর অঞ্চলকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি।

পুরস্কার প্রাপ্ত করদাতাদের স্বাগত জানিয়ে সেলিম ওসমান এমপি বলেন, সম্মাননা প্রদানের মাধ্যে দিয়ে আয়কর বিভাগও সম্মানিত হয়েছে। মাস ভিত্তিক আয় থেকে কর প্রদান করা আমাদের নৈতিক দায়িত্ব। দেশের উন্নয়ন অব্যাহত রাখতে আরো বেশি আয়কর প্রদান করতে হবে।

সভাপতির বক্তব্যে নারায়ণগঞ্জ কর অঞ্চিলের কর কমিশনার রনজীত কুমার সাহা বলেন, আপনারা যে কর প্রদান করেন, সেই কর দিয়েই আজ দেশ উন্নয়নের মহাসড়কে এসেছি। দেশকে আরো উন্নয়ন করতে হলে আরো বেশি কর প্রদান করতে হবে। ২০১২ সালে যখন এই কর মেলা শুরু হয়েছে, তখন আমাদের কর সংগ্রহ করা হয়েছিলো মাত্র ৯৭ কোটি টাকা। গত অর্থ বছরে আমরা সংগ্রহ করেছি ৪‘শ ৬ কোটি টাকা এবং এবছর আমাদের টার্গেট দেওয়া হয়েছে ৭‘শ ৬ কোটি টাকা।

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম