Tue, 13 Nov, 2018
 
logo
 

নগরীতে টেক্স এশিয়ার শ্রমিকদের বিক্ষোভ মিছিল


স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: নিউ টেক্স এশিয়া নামের একটি গার্মেন্ট কারখানা বে-আইনি ভাবে সরিয়ে নেওয়ার প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল করেছে শ্রমিকরা।

রোববার (৯ সেপ্টেম্বর) সকালে চাষাড়া শহীদ মিনারে শ্রমিকরা সমবেত হয়ে শহরে বিক্ষোভ মিছিল করে শ্রমিকরা। এসময় কল-কারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তর কার্যালয়ের সামনে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ সমাবেশ করে।

এসময় সংহতি জানিয়ে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন গার্মেন্ট শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্র'র কেন্দ্রিয় কমিটির নেতা দুলাল সাহা, নারায়ণগঞ্জ জেলা কমিটির সভাপতি এম এ শাহীন, সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন।

সমাবেশ শেষে শ্রমিক ও নেতৃবৃন্দসহ পাঁচ সদস্যের একটি দল কল-কারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তরের উপ-মহাপরিদর্শক বরাবর টেক্স এশিয়া কারখানা শ্রমিকদের সংকট নিরসনে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

অভিযোগ পেয়ে উপ-মহাপরিদর্শক বলেন- শিল্প পুলিশকে সাথে নিয়ে কারখানার মালিকের সাথে কথা বলে শ্রমিক ও নেতৃবৃন্দ সহ আলোচনায় বসে সংকট সমাধান করা হবে বলে আশ্বস্ত করেন। শেষ পর্যায়ে দুপুর বেলায় বহিরাগত কয়েক জন লোক কল-কারখানা অধিদপ্তরে প্রবেশ করে শ্রমিক নেতৃবৃন্দের কাছে অভিযোগের কাগজ চায় এবং তারা বলেন এই কারখানার বিষয়টি হাজী আজমির ওসমান দেখতেছে আপনারা কোন সাহসে আন্দোলন করছেন? যেখানে হাজী সাহেব আছে সেখানে বাড়াবাড়ি করে ফলাফল ভালো হবে না । তারা আজমির ওসমানের নাম করে হুমকি দিয়ে বাহির হয়ে যায়। অফিসের নীচে অবস্থানরত শ্রমিকদের মারধর করে এলাকা থেকে তাড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দেয়। তাছাড়া শ্রমিক নেতৃবৃন্দ কে বাহির হয়ে যেতে দিবেনা বাহির হলে দেখে নেওয়ার হুমকি দেয়। এসময় সনেট, মনির ও শাওন সহ ১৫/২০ জন সন্ত্রাসী অফিসের সামনে ওঁত পেতে দাঁড়িয়ে ছিলো।

নেতৃবৃন্দ সন্ত্রাসী হামলা হওয়ার আশংকা থোকে বিষয়টি উপ-মহাপরিদর্শক কে জানায় এবং শিল্প পুলিশ-৪ এর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মাহবুব সাহেব কে অবহিত করে নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়ার অনুরুধ করেন। বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্র'র নারায়ণগঞ্জ জেলা কমিটির সাবেক সভাপতি হাফিজুল ঘটনার বিষয় জানতে পেরে নারায়ণগঞ্জ সদর থানার অপারেশন অফিসার ইন্চার্জ রাজ্জাক সাহেব কে অবহিত করে পুলিশী নিরাপত্তা দেয়ার অনুরুধ করেন। ওঁত পেতে থাকা সন্ত্রাসীরা টের পেয়ে পুলিশ আশার পূর্বেই চলে যায়। টেক্স এশিয়ার শ্রমিকদের আন্দোলন থেকে সড়ে যাওয়ার জন্য এক ব্যক্তি মোবাইল ফোনে শ্রমিক নেতা ইকবাল হোসেন কে ০১৯১১৮৬০৪৯৯ নাম্বার থেকে হুমকি দেয়। বলে হাজী সাবের বিরুদ্ধে গিয়ে আন্দোলন করার পরিণতি ভালো হবে না।গার্মেন্ট শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের পক্ষ থেকে এসব সন্ত্রাসী হুমকি ধামকির প্রতিবাদ জানিয়ে নেতৃবৃন্দ হুমকিদাতা সন্ত্রাসীদের খোঁজে বের করে আইনের আওতায় নেওয়ার জন্য পুলিশ প্রশাসনের প্রতি আহবান জানায়। একই সাথে আলোচনার মাধ্যমে টেক্স এশিয়া শ্রমিকদের সংকট সমাধানের দাবী জানান তারা ।

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম