Tue, 24 Apr, 2018
 
logo
 

সিটি করপোরেশনের গৃহকর পুনর্মূল্যায়ন বন্ধ

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: সিটি করপোরেশনের গৃহকর পুনর্মূল্যায়ন-সংক্রান্ত সব কার্যক্রম স্থগিত করেছে সরকার। গৃহকর নির্ধারণ প্রক্রিয়ার স্বচ্ছতা নিয়ে প্রশ্ন ওঠায় এবং অতিরিক্ত অর্থ আদায়ের বিভিন্ন অভিযোগ ওঠায় সরকার এ কার্যক্রম স্থগিত করেছে।

সরকারের ঊর্ধ্বতন একটি সূত্র জানিয়েছে, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে গৃহকর না বাড়ানোর ব্যাপারে সরকার নীতিগত সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

গতকাল স্থানীয় সরকার বিভাগ থেকে এ-সংক্রান্ত একটি চিঠি সব সিটি করপোরেশনে পাঠানো হয়েছে। স্থানীয় সরকার বিভাগের উপসচিব আবুল ফজল মীরের সই করা ওই চিঠিতে বলা হয়েছে, সরকারের অনুমতি ছাড়া কেউ এ কার্যক্রম চালু করতে পারবে না। ভবিষ্যতে অনলাইনভিত্তিক অটোমেশন পদ্ধতিতে কর আদায় করা হবে। এ বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে সব সিটি করপোরেশনের মেয়রকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

জানা গেছে, বিভিন্ন সিটি করপোরেশনের নানা হারে কর গুনতে হয়। এর মাঝে হাজার বর্গফুটের একটি আবাসিক ভবনে ১২ শতাংশ হারে ঢাকা উত্তর-দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের বাসিন্দারা দিচ্ছে ৬ হাজার থেকে ৭ হাজার ৬৮০ টাকা, খুলনায় সেটা ১০ হাজার ৪‘শ টাকা, আবার রংপুরে ১১ হাজার ৪০টা। সেখানে ঢাকার চেয়ে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের বাসিন্দাদের গুনতে হচ্ছে প্রায় ৩ গুন গৃহকর।

স্থানীয় সরকার বিভাগের কর্মকর্তাদের মতে, গৃহকর পুনর্মূল্যায়ন নিয়ে বিপুলসংখ্যক আপত্তি জমা পড়েছে। বেশির ভাগ অভিযোগই পুনর্মূল্যায়ন প্রক্রিয়ার স্বচ্ছতা নিয়ে। পুনর্মূল্যায়নে প্রথাগত ম্যানুয়াল (অযান্ত্রিক) পদ্ধতি অনুসরণ করার কারণেই এ ধরনের পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে।
জানতে চাইলে স্থানীয় সরকার বিভাগের সচিব আবদুল মালেক বলেন, গৃহকর পুনর্মূল্যায়নের ক্ষেত্রে অনেকে অসুবিধার সম্মুখীন হচ্ছেন। এ কার্যক্রমে স্বচ্ছতা নেই। নাগরিক সেবা প্রদান কার্যক্রম সম্পূর্ণ স্বচ্ছ, জনবান্ধব ও অনলাইনে সম্পাদন নিশ্চিত করতেই আমরা গৃহকর পুনর্মূল্যায়ন-সংক্রান্ত সকল কার্যক্রম স্থগিত করেছি।

এবিষয়ে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভী বলেন, ‘প্রতি পাঁচ বছর পরপর মূল্যায়নের মাধ্যমে কর সমতায়ন করার কথা। আমরা তাই করছি। এখনো এ কার্যক্রম বন্ধ করার কোনো চিঠি পাইনি। পেলে বলতে পারব।’

 

পূর্বের নিউজ পড়তে ক্লিক করুণ:

ঢাকার চেয়ে ৩ গুন গৃহকর নারায়ণগঞ্জে

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম