Sat, 16 Dec, 2017
 
logo
 

না.গঞ্জে ইপিবি’র সেমিনার : রপ্তানী বাণিজ্যে আয় বৃদ্ধি অপরিহার্য - মাফরূহা সুলতানা

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: জাতীয় রপ্তানী প্রশিক্ষণ কর্মসূচি (এনইটিপি) এর আওতায় রপ্তানী উন্নয়ন ব্যুরো (ইপিবি) নারায়ণগঞ্জ জেলা শাখার উদ্যোগে সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শনিবার দুপুরের আগে বিকেএমইএ এর কনফারেন্স রুমে ‘ডিউটি ফ্রি এন্ড কোটা ফ্রি মার্কেট এক্সেস প্রোভাইডেড বাই সার্ক কান্ট্রিস চিনা, কোরিয়া এন্ড আদার্স’ শীর্ষক এই সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়।
না.গঞ্জে ইপিবি’র সেমিনার : রপ্তানী বাণিজ্যে আয় বৃদ্ধি অপরিহার্য - মাফরূহা সুলতানা
এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রপ্তানী উন্নয়ন ব্যুরোর ভাইস-চেয়ারম্যান বেগম মাফরূহা সুলতানা এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিকেএমইএ’র সাবেক সিনিয়র সহ-সভাপতি মোহাম্মদ হাতেম।

এছাড়া আরো উপস্থিত ছিলেন, বিকেএমইএ’র সহ-সভাপতি (অর্থ) জিএম ফারুক, পরিচালক হুমায়ূন কবির শিল্পী ও মুজিবুর রহমান, রপ্তানী উন্নয়ণ ব্যুরো’র সহকারী পরিচালক মো. তোফাজ্জল হোসেনসহ বিভিন্ন সংস্থা ও প্রতিষ্ঠানের মনোনীত প্রতিনিধিবৃন্দ।

 ব্যাংক নিয়ে গঠিত অডিট টীম এর দুর্ণীতির ব্যাপক সমালোচনা করেন সেমিনারে আসা ব্যবসায়ী প্রতিনিধিরা। তারা তুলে ধরেন, নানা ধরণের আইনের কথা বলে, নানা রকম ছলচাতুরী করে দুর্ণীতির মাধ্যমে রপ্তানীকারকদের কাছ থেকে অডিট টীম টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। এর থেকে আমরা পরিত্রাণ চাই।

না.গঞ্জে ইপিবি’র সেমিনার : রপ্তানী বাণিজ্যে আয় বৃদ্ধি অপরিহার্য - মাফরূহা সুলতানা

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মাফরূহা সুলতানা বলেন, বাংলাদেশে সমৃদ্ধির জন্য রপ্তানী বাণিজ্যে আয় বৃদ্ধি অপরিহার্য। রপ্তানী বাড়লে দেশের বৈদিশিক মুদ্রার রিজার্ভ বাড়বে এবং দেশের ভিতরে কর্মসংস্থান বাড়বে। ২০১৫-১৬ অর্থ বছরে দেশের বিভিন্ন পণ্য রপ্তানী হলেও রপ্তানী আয়ের ৮২ ভাগ আসছে তৈরী পোশাক খাত থেকে। বাংলাদেশ পৃথিবীর প্রায় সকল দেশেই কোটামুক্তভাবে পণ্য রপ্তানীর সুবিধা পাচ্ছে।
 
তিনি আরো বলেন, বর্তমান সরকার ব্যাবসা বান্ধব সরকার। প্রধানমন্ত্রী দেশীয় প্রতিষ্ঠানগুলোকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য অগ্রণী ভূমিকা পালন করে যাচ্ছেন। আমাদের সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে। তাহলেই জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সোনার বাংলাদেশ অর্থনৈতিক মুক্তি অর্জন করতে পারবে।
 না.গঞ্জে ইপিবি’র সেমিনার : রপ্তানী বাণিজ্যে আয় বৃদ্ধি অপরিহার্য - মাফরূহা সুলতানা
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে মোহাম্মদ হাতেম প্রধান অতিথির মাধ্যমে বাংলাদেশ সরকারের প্রতি অনুরোধ জানিয়ে বলেন, চায়নাতে আমাদের বিশাল একটি বাজার রয়েছে। রাশিয়াতেও আমাদের বাজার আছে। কিন্তু, রাশিয়ার বাজারে ডিউটি ফ্রি এক্সসেস এখনও পাইনি। আমরা যেন এ বাজারে ডিউটি ফ্রি এক্সসেস পাই, সে জন্য আপনি সরকারের উচ্চপর্যায়ে চেষ্টা করবেন বলে আমরা আশা রাখি।
 
জিএম ফারুক বলেন, এদেশ গড়ার দায়িত্ব আমাদের। আমাদের সবাইকে একসাথে কাজ করতে হবে। তাহলেই এদেশ এগিয়ে যাবে। এছাড়া বিকেএমইএ’র সভাপতি এমপি সেলিম ওসমান মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোতে নারায়ণগঞ্জের নীটওয়ারকে সম্প্রসারণের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন।
সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন রপ্তানী উন্নয়ন পরিচালক অনুপ কান্তি সাহা।

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম