Fri, 16 Nov, 2018
 
logo
 

শেখ হাসিনার ঋণ শোধ করতে হবে: শামীম ওসমান

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: আগামী ২৭ অক্টোবর স্মরণকালের সর্ববৃহৎ জনসভা আয়োজনের আশাবাদ ব্যক্ত করে শামীম ওসমান বলেছেন, ‘মাসদাইর, ইসদাইর, গাবতলী, চাষাড়া, জামতলা, খানপুর, তল্লা, সস্তাপুর, লামারবাগ এইসব এলাকা দিয়ে বিপুল সংখ্যক লোক আসবে বলে আমি আশা করি। তবে কেউ রাস্তায় জ্যাম লাগাবেন না। টাইম নিয়ে আসতে হবে। নারায়ণগঞ্জে ইতিহাসে বিশাল এক সমাবেশ আমরা করবো। কে কার সাথে যাবে সেটা বড় কথা না। টাইম মতো মিটিংয়ে আসাটা বড় কথা।’

শনিবার (২০ অক্টোবর) বিকেলে লিংক রোডের নাসিম ওসমান মেমোরিয়াল (নম) পার্কে আয়োজিত এক কর্মীসভায় তিনি এসব কথা বলেন। আগামী ২৭ অক্টোবর শামীম ওসমানের জনসভা সফল করার লক্ষ্যে উক্ত কর্মীসভা অনুষ্ঠিত হয়।

কর্মী সভায় শামীম ওসমান আরো বলেন, ‘ভাড়া করা কোন মহিলা আমাদের দরকার নাই। আমাদের মহিলা নেত্রী অনেক আছে। নারায়ণগঞ্জে এই রকম দুই-চারটা স্টেডিয়াম ভরতে লোক ভাড়া করা লাগে না। আমরা কোন বড় নেতা আনতেছি না। কারণ আমরা প্রমাণ করতে চাই, নারায়ণগঞ্জে আমরাই যথেষ্ট।’

২৭ তারিখের পরে নভেম্বর মাসের শুরু থেকে আপনারা প্রোগ্রাম এরেঞ্জ করেন। আমি প্রত্যেকটা এলাকার প্রোগ্রামে যাবো। আমরা প্রত্যেকটা ঘরে ঢোকার চেষ্টা করবো। প্রত্যেকটা এলাকায় আমাদের বক্তব্য, শেখ হাসিনার সালাম পৌছায়ে দেয়ার চেষ্টা করবো। আমরা নির্বাচনী কাজ একটু আগে শেষ করতে চাই। কারণ, কেউ ঢাকায় কামড় দিলে আমরা তাঁর দাঁতটা ভাইঙ্গা দিয়া আসতে পারি, আমাদের কাজ থাকবে এটাই।

আমি আশা করি বিশেষ করে আপনাদের কাছে, মানুষ তো আপনারাও, আপনারা বলেন তো ভাই যারা আমার নেত্রিকে মারার চেষ্টা করেছে তাদের সাথে কি গণতন্ত্রের চর্চা করবো নাকি করবো না। উনি ওনার মৃত্যুর ভয় না পেতে পারে কিন্তু উনাকে আমার দরকার, আমার দেশের জন্য দরকার, আমার সন্তানের জন্য দরকার, উনি বাংলাদেশের ভবিষৎ, আমি শামিম না থাকলে কিছু হবে না, কিন্তু উনি না থাকলে বাংলাদেশ কিছুইনা, সব কথার এক কথা ওনাকে যারা মারতে চাইছে তার সাথে আপস করবো না এবং কাউকে করতেও দিব না। আজকে থেকে সেই মানুষগুলো যেন মাঠে নামতে না পারে যারা আমাদের নেত্রিকে মারার চেষ্টা করছে। আপনারা শুধু খেয়াল রাখবেন কারা, কে, কোথায় কি করতেছে। লাইন টাইন যদি করে, যে আমার দুলাভাই তো আওয়ামীলীগের বড় নেতা লাভ হবে না, হয় কলেমা পইরা এইখানে আইসা পরো নাহয় নাউজুবিল্লাহ পইরা দেশ ছাড়ো কিংবা অন্য কোথাও যাও, ঠাই হবে না আমাদের এলাকায়। পরিস্কার বাংলায় না মানে না, আমাদের নতুন নতুন চমক দেওয়ার স্বর্ণের পাখির দরকার নাই। আমরাই শেখ হাসিনার জন্য যথেষ্ট ইনশাল্লাহ, আমরাই পারবো। গেম করবেন যে দেখি কন দিকে পাল্লা ভাড়ি এতেও লাভ হবে না এবার, কি হবে আগামী কয়দিন পর বুঝতে পারবেন।

তিনি আরো বলেন, ‘আমি ভালো মানুষ না। আমি পাপী মানুষ। ওই আল্লাহকে নিয়মিত সেজদা করি। তার উপরে ভরসা করে বলতেছি, টেনশন নিয়েন না। ক্ষমতায় আসবো আমরাই। কসম কইরা বলতেছি, মা কইয়া বউ বলার সুযোগ পাবে না। কবর হইয়া গেছে বাকি আছে মাটি কিছু দেয়ার। নভেম্বরের মধ্যে মাটি দেয়া কম্পিøট করে দেবো। ছেলে গেছে বিদেশে মা যাবে স্বদেশে। ডোন্ট ওয়ারি, চিন্তা কইরেন না। নাম থাকবেনা ওদের যারা আমার নেত্রীকে মারতে চেষ্টা করছে। যতোই ডক্টর হোক কিংবা আমেরিকা ফেরত কোন লাভ হবে না। পরিষ্কার করে কথা বলতে পারতেছি না। যদি ঠিক মতো কইতে পারতাম তাহলে আপনারা বলতেন কালকে জনসভা ডাক দিতে।’

শেষবারের মতো নেতাকর্মীদের কাছে সহযোগিতা কামনা করে নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সাংসদ একেএম শামীম ওসমান বলেছেন, যারা এখন স্বপ্ন দেখছেন কি হবে আগামীবার বুঝতে পারবেন। স্বপ্ন স্বপ্নই থাইকা যাইবো। ওই ড. কামাল কবে কই যাইবো ঠিক থাকবো না। এটা শেষবার, শেষবার আমাকে সহযোগিতা করেন। শেখ হাসিনার ঋণ শোধ করতে হবে।

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম