Thu, 13 Dec, 2018
 
logo
 

না.গঞ্জের ৬টি দলের শীর্ষ নেতাদের ভাবনায় অজানা শঙ্কা!

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: রাজনৈতিক দল গুলোর একদিকে জোট গঠন। আবার ফাটল। নির্বাচন কমিশনের তফসিল ঘোষনার প্রস্তুতি। সব মিলিয়ে দেশের রাজনীতি বেশ বাকবিতন্ডা মূখর। তবে, যতই তফসিলের দিন ঘনিয়ে আসছে, ততই অজানা শঙ্কাও কাজ করছে রাজনৈতিক অঙ্গনে।

বিএনপি’র দাবি তফসিলের আগে খালেদা জিয়ার মুক্তি। নারাণগঞ্জ বিএনপি বলছে ‘এ জন্য যা যা কর্মসূচী দেওয়া দরকার, সবই করতে প্রস্তুত নেতাকর্মীরা’। অন্য দিকে ১৪ দলের নেতাদের দাবি, ‘যে কোনো উত্তপ্ত পরিস্থিতি সামাল দিতে প্রস্তুত রয়েছি। সঠিক জবাব দেওয়া হবে’। তবে বাম ঘরোনার দল গুলো বলছে, ‘আন্দোলনে আছি, ২০১৪ সালের মতো কোন নির্বাচন হতে পারবে না’।


তফসিল ঘোষনার পর রাজনৈতিক পরিস্থিতি কী হতে পারে? এবিষয়ে লাইভ নারায়ণগঞ্জের সাথে আলাপ হয় নারায়ণগঞ্জের আওয়ামীলীগ, বিএনপি, জাতীয় পার্টি, সিপিবি, বাসদ ও ওয়ার্কাস পাটির র্শীষ নেতাদের।


আওয়ামীলীগ:
নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আবদুল হাই লাইভ নারায়ণগঞ্জকে বলেন, তফসিল ঘোষণার পর রাজনৈতিক পরিবেশ উত্তপ্ত হলে, আমরা সাংগঠনিক প্রক্রিয়ায় মোকাবিলা করবো। তবে রাজনীতিতে উত্তপ্ত হওয়ার আপাতত কিছুই দেখছি না।


নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন লাইভ নারায়ণগঞ্জকে বলেন, আওয়ামীলীগ নির্বাচন মূখি দল, নির্বাচন করতে সব সময়ই প্রস্তুত থাকে। আমরাও প্রস্তুত। তবে রাজনৈতিক পরিবেশ উত্তপ্ত হওয়ার কোনো অবকাশ নেই, আর যদি হয়ও তাহলে আমরা রাজনৈতিক ভাবে তা মোকাবেলা করবো।


নারায়ণগঞ্জ জেলার আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আবুল হাসনাত মো. শহিদ বাদল লাইভ নারায়ণগঞ্জকে বলেন, বিএনপি সন্ত্রাসী দল, তাদের দ্বারা নাশকতা হতে পারি, এটা অস্বাভাবিক নয়। আমরা আমাদের মতো দলীয় কার্যক্রম পালন করবো। তারপরেও বিএনপি নাশতকা করলে, আমরা রাজনৈতিক ভাবেই প্রতিহতো করবো।


নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট খোকন সাহা লাইভ নারায়ণগঞ্জকে বলেন, আমাদের সাংগঠনিক প্রস্তুতি অনেক ভালো। যে কোনো উত্তপ্ত পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার জন্য দল অনেক শক্তিশালি হয়েছে।


নারায়ণগঞ্জ জেলার আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সুফিয়ান লাইভ নারায়ণগঞ্জকে বলেন, বিএনপি দেশের মাঝে উত্তপ্ত পরিস্থিতি সৃষ্টি করলে জনগণকে সাথে নিয়ে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ তার সঠিক জবাব দিবে।


বিএনপি:
অন্যদিকে বিএনপির চেয়ারপারন বেগম খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা তৈমূর আলম খন্দকার লাইভ নারায়ণগঞ্জকে বলেন, যতই তফসিল ঘোষনা হোক না কেন? খালেদা জিয়ার মুক্তি ছাড়া আমরা নির্বাচনে যেতে পারবো না। আগে খালেদা জিয়ার মুক্তি তারপর নির্বাচন। খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য যা যা কর্মসূচী দেওয়া দরকার, তার সবগুলোই দেওয়া হবে।


নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এটিএম কামাল লাইভ নারায়ণগঞ্জকে বলেন, এই মুহুর্তে দেশে নির্বাচনের পরিবেশ নেই। নির্বাচনের আগে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড তৈরি করার ব্যাপারে আমাদের কাজ করতে হবে। আমাদের নেত্রী বর্তমানে মিথ্যা মামলায় জেলে আছে, তার মুক্তির জন্য আমরা দলগত ভাবে কাজ করে যাচ্ছি। কারণ আমরা নির্বাচনে অংশগ্রহন করবো কিনা, তিনিই তো আমাদের নির্দেশনা দিবেন। খালেদা জিয়া যদি কোনো কর্মসূচি দেন, সেই কর্মসূচি আমরা পালন করার জন্য সাংগঠনিক ভাবে প্রস্তুত হচ্ছি।


এ বিষয়ে নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক মাসুকুল ইসলাম রাজিব বলেন, সাংগঠনিক ভাবে বিএনপি অন্য কোনো দলের চেয়ে পিছিয়ে নেই। কিন্তু প্রদর্শন করার যে পরিবেশটা দরকার, সেই পরিবেশটা তৈরি করে দিতে হবে সরকারকে। অথচ, সরকার গায়েবি মামলা দিয়ে বিএনপিকে দমিয়ে রাখার চেষ্টা করছে। যখন সহ্যর সীমা অতিক্রম হয়, তখন মানুষ তা প্রতিহত করতে রুখে দাড়ায়। এখন দেশের সকল শ্রেনীর মানুষের ও সাংবাদিক-গণমাধ্যমকর্মীদের স্বাধীনতা, গণতান্ত্রীক অধিকার, বাক স্বাধীনতা সবইতো রুদ্ধ। তাই বিএনপিকে মোকাবিলা করার শক্তি এই সরকারের নাই। আমরা আশাবাদী বাংলাদেশের ভবিষ্যৎ এর কথা চিন্তা করে বর্তমান সরকারের শুভ বুদ্ধি উদয় হবে।


এ বিষয়ে নারায়ণগঞ্জ যুব দলের নেতা শহিদুর রহমান স্বপন বলেন, আমাদের সাংগঠনিক অবস্থা বর্তমানে অনেক শক্তিশালী। আমাদের নারায়ণগঞ্জ বিএনপির মধ্যে কোনো ভেদাভেদ নাই, এখন বিএনপির ভাইস-চেয়ারম্যান তারেক রহমান আমাদেরকে যে ধরণের নির্দেশনা দিবে, আমরা ঐ ভাবে কার্যক্রম পরিচালনা করার জন্য নারায়ণগঞ্জ যুব দলের পক্ষ হতে প্রস্তুত আছি।


জাতীয় পার্টি:
তবে বিষয়টি নিয়ে জাতীয় পার্টির নেতা আকরাম আলী শাহিন লাইভ নারায়ণগঞ্জকে বলেন, জনগন আগের চেয়ে অনেক সচেতন। ২০১৪ সালের কথা এখনও ভুলেনি। বিএনপি যদি উত্তপ্ত হয়, সেই উত্তপ্তকে সামাল দেওয়ার জন্য জনগণই যথেষ্ট।
নারায়ণগঞ্জ জেলা জাতীয় পার্টির আহ্বায়ক আবু জাহের লাইভ নারায়ণগঞ্জকে বলেন, আমাদের সংগঠনিক প্রস্তুতি আগেও ভালো ছিল, বতর্মানেও ভালো আছে, আগামীতেও ভালো থাকবে। যে কোন ধরণের সংকট মোকাবেলায় আমরা প্রস্তুতি আছি।


সিপিবি:
বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির নারায়ণগঞ্জ জেলা কমিটির সভাপতি হাফিজুল ইসলাম লাইভ নারায়ণগঞ্জকে বলেন, আমরা বিভিন্ন দাবিতে নির্বাচন সচিবালয়ের সামনে ঘেরাও করে ছিলাম। আগামী ২৩ অক্টোবর আমরা সারা দেশব্যাপী বিক্ষোভ করবো। বিএনপি কি করবে, না করবে আমরা জানি না। কিন্তু আমাদের আন্দোলন এ আছি। আমাদের আন্দেলন চলছে আরও চলবে।


ওয়ার্কাস পার্টি:
এবিষয়ে বাংলাদেশ ওয়ার্কাস পার্টি নারায়ণগঞ্জ জেলার সাধারণ সম্পাদক হিমাংশু সাহা লাইভ নারায়ণগঞ্জকে বলেন, রাজনীতি আবহাওয়া নির্বাচনের সময় একটু উত্তপ্ত থাকে। কিন্তু সেটা যদি জ্বালাও পোড়াও হয়, তাহলে তার উপর পদক্ষেপ নেওয়া হবে।


বাসদ:
বাসদ জেলা সমন্বয়ক নিখিল দাস লাইভ নারায়ণগঞ্জকে বলেন, সরকার ২০১৪ সালে যে রকম নির্বাচন করেছে, ওইটাকে তো নির্বাচন বলে না। ওই রকম নির্বাচন হলে রাজনীতি উত্তপ্ত হওয়াটাই স্বাভাবিক। এক তরফা নির্বাচন করার পদক্ষেপ পরিবর্তন না করলে, আমরা রাস্তায় নামবো এবং আমি মনে করি সবার নামা উচিত।

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম