Fri, 17 Aug, 2018
 
logo
 

‘জোটবদ্ধ না জোটমুক্ত’ কোন পথে জাপা, আ.লীগ দিবে না ছাড়

লাইভ নারায়ণগঞ্জ : ঘনিয়ে আসছে নির্বাচন। তোড়জোর শুরু হয়েছে রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে। স্থানীয় পর্যায়েও শুরু হয়েছে নির্বাচনী প্রস্তুতি। মনোনয়ন প্রত্যাশীরা ইতোমধ্যে মাঠেও নেমেছেন। এর ব্যতিক্রম নেই নারায়ণগঞ্জেও। ভোটার, কর্মীদের কাছে টানতে ও কেন্দ্রীয় নেতাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে এই জেলায় মাঠে সক্রিয় রয়েছে একাধীক মনোনয়ন প্রত্যাশী।

এর মধ্যে আওয়ামী লীগ ও বিএনপিকে সক্রিয় দেখা যাচ্ছে। এক দলের একই আসন থেকে তিন চার পাঁচজন মনোনয়ন প্রত্যাশীরা সক্রিয় রয়েছেন। তবে ব্যতিক্রম দেখা যাচ্ছে এখানকার জাতীয় পার্টির ক্ষেত্রে। এ দলটির দুজন এমপি বর্তমানে রয়েছে। তাদের মধ্যে লিয়াকত হোসেন খোকা নির্বাচনী কাজ শুরু করলেও সেলিম ওসমান নির্বাচনী কোনো কাজে এখনও মাঠে নামেননি। তবে তিনি মাঠে তার নিয়মিত কাজ করে যাচ্ছেন।

এদিকে নারায়ণগঞ্জ আওয়ামী লীগ ইতি মধ্যে স্পষ্ট করে দিয়েছে এবার তারা নারায়ণগঞ্জে ৫টি আসনেই নিজ দলীয় প্রার্থী চাচ্ছেন। এখানে অন্য কোনো দল তথা জাপাকে আর সুযোগ দিবেন না বলেই বিভিন্ন সভা সমাবেশে বক্তব্য দিয়ে জানিয়ে দিয়েছেন। আবার স্থানীয় জাপা নেতৃবৃন্দও মুখিয়ে আছেন আওয়ামী লীগের সাথে জোটবদ্ধ হয়ে নির্বাচন করতে।

অপরদিকে কেন্দ্র থেকে এখনও এ ব্যাপারে কোনো সিদ্ধান্ত দেয়া হয়নি। তবে এর মধ্যে একবার দলটির চেয়ারম্যান হুসাইন মুহাম্মদ এরশাদ জানিয়েছিলে তারা আওয়ামী লীগের সাথে জোটবদ্ধ নির্বাচন করবেন না। তারা মহাজোটে আর নেই। তবে শেষ পর্যন্ত জাপা মহাজোটে আসবেন নাকি একক নির্বাচন করবে, সে নিয়েও সৃষ্টি হয়েছে ধোঁয়াশা।

যদিও নারায়ণগঞ্জের জাতীয় পার্টি চাচ্ছে আওয়ামী লীগের সাথে জোটবদ্ধ হয়ে নির্বাচন করতে। কিন্তু সেটি কতটা সফল হবে, তা নিয়েও দেখা দিয়েছে সংশয়।

তবে স্থানীয় আওয়ামী লীগের অনেক নেতাকর্মীই মনে করছেন, নারায়ণগঞ্জে জাতীয় পার্টি নামে থাকলেও তাদের সেভাবে ভোট ব্যাঙ্ক এখানে নেই। এককভাবে নির্বাচন করলে তারা নির্বাচনী বৈতরণী পারও হতে পারবে না। তাই তারা চাইছে আওয়ামী লীগের কাঁধে ভর করে নির্বাচনী বৈতরণী পার হতে।

স্থানীয় আওয়ামী লীগ জাপাকে সে সুযোগ দিতে চাচ্ছে না বলেই তারা নারায়ণগঞ্জের ৫টি আসনেই দলীয় প্রার্থী প্রত্যাশা করছেন। এবং তারাও বিশ্বাস করেন এবার জাপাকে আর ছাড়া দেয়া হবে না। এখানে তারাই প্রার্থী দিবেন।

সম্প্রতি খবর রটেছে আওয়ামী লীগের কাছে জাতীয় পার্টি নারায়ণগঞ্জের ৫টি আসনই চেয়েছে! যদিও এ খবরের কোনো সত্যতা এখনও পাওয়া যায়নি। তাই এটিকে গুঞ্জন বলেই ধরে নিচ্ছেন সকলে। তাদের মতে, আওয়ামী লীগ দাবি করেছে তারা এখন ১৪ দল মহাজোট নেই। আবার জাপাও দাবি করেছে তারা এখন আলাদা দল মহাজোটে নেই। সুতরাং জোটবদ্ধ নির্বাচনের আশঙ্কাটা অনেকটাই ক্ষীণ। তারপরও রাজনীতিতে শেষ বলে কোনো কথা নেই। তাই সামনে কী হবে, তাই দেখার অপেক্ষা করছেন অনেকে।

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম