Mon, 10 Dec, 2018
 
logo
 

অবস্থান ধরে রাখতে শামীম ওসমানের কৌশল!


লাইভ নারায়ণগঞ্জ: এক সময় নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগে একেএম শামীম ওসমানের পুরো কর্তৃত্ব ছিলো। শহর ও থানা এলাকাগুলোতে তার হুকুমে চলতে হতো সব নেতাকর্মীকে। তবে এখন সেই অবস্থা আর নেই বলে মনে করেন রাজনীতি পর্যবেক্ষক মহল। তাদের মতে, পুরনো ক্ষমতা ফিরে পেতে নতুন করে চেষ্টা করছেন তিনি।


১৯৯৬ থেকে ২০০১ সালের নির্বাচন আগ পর্যন্ত এ শহর তথা গোটা জেলার দন্ডমুন্ডের হর্তাকর্তা ছিলেন একেএম শামীম ওসমান। অগণিত অনুগত কর্মী থাকায় কেন্দ্রেও তার গ্রহনযোগ্যতা ছিলো বেশ। চারদলীয় জোট সরকারের আমলে বিদেশে থাকাকালিনও দলে ক্ষমতাধর ছিলেন তিনি। তবে দিনে দিনে নানা কারনে সেই ক্ষমতা তিনি হারিয়ে ফেলেছেন বলে মনে করেন দলীয় নেতাকর্মীদের একটি অংশ।
তাদের মতে, ২০১১ সালে অনুষ্ঠিত নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের প্রথম নির্বাচনে আওয়ামীলীগের সমর্থন পেলেও পরাজিত হওয়ায় প্রথম ধাক্কা খান শামীম ওসমান। এরপর মেয়র আইভীর বিরুদ্ধে অবস্থান নেয়ায় সমালোচিত হতে থাকেন। এনসিসি’র ২য় নির্বাচনে আইভীকে সমর্থন না করে তার অনুগত মহানগর আওয়ামীলীগের প্রস্তাব কেন্দ্রে পাঠিয়ে আরেকবার আইভী বিরোধী হিসেবে চিহ্নিত হলেও দলীয় প্রধান আইভীকেই মনোনয়ন দেন। রাজনীতি পর্যবেক্ষকদের মতে, এরপরই কেন্দ্রে তার অবস্থান কিছুটা নড়বড়ে হয়।
জেলা আওয়ামীলীগ কমিটি গঠনে এবার তেমন প্রভাব খাটাতে পারেননি তিনি। নিজ সংসদীয় আসনে দলীয় একাধিক প্রতিদ্বন্দ্বির মুখোমুখি হয়েছেন তিনি। আগামীতে দলের মনোনয়ন পেতে তাকে বেশ বেগ পোহাতে হতে পারে বলে মনে করেন রাজনীতি বোদ্ধারা। তাদের মতে, এ কারনেই ফতুল্লা সিদ্ধিরগঞ্জে কর্মীসভা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সে। নিজের অবস্থান ঝালাই করে নিতেই এ কৌশল অবলম্বন করেছেন এই পলিটিশিয়ান।

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম