Tue, 24 Apr, 2018
 
logo
 

দিশেহারা জাতিকে আলোর পথ দেখিয়েছেন জিয়াউর রহমান: কালাম

লাইভ নারায়ণগঞ্জ ডেস্ক: বিজয় দিবস উপলক্ষে প্রস্তুতি মূলক সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে মহানগর বিএনপির সভাপতি ও সাবেক সাংসদ এড. আবুল কালাম বলেন, ৭১ সালে  দিশেহারা জাতিকে আলোর পথ দেখিয়ে ছিলেন শহীদ

রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান। সেই আলোকেই জাতীয়তাবাদী চেতনায় বিশ্বাস করেই আমরা স্বাধীনতা দিবস পালন করি। মঙ্গলবার বাদ মাগরিব কালিবাজারস্থ মহানগর বিএনপি’র অস্থায়ী কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়। মহানগর শ্রমিক দলের উদ্যোগে আয়োজিত সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত আহবায়ক মনির মল্লিক এর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এটিএম কামাল, প্রধানবক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, মহানগর শ্রমিক দলের সদস্য সচিব আলী আজগর।
এ সময় আরও বক্তব্য রাখেন, মহানগর বিএনপির সহ-সভাপতি ফখরুল ইসলাম মজনু, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সবুর খান সেন্টু, এড. আবু আল ইউসুফ খান টিপু, মহানগর শ্রমিক দলের যুগ্ম-আহবায়ক ফজলুল হক, গামেণ্টর্স শ্রমিক দলের নেতা নুর মোহাম্মদ সহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।
এ সময় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি আরও বলেন, এই জালিম সরকারের নির্যাতনের শিকার দেশের মানুষের জন্য বয়জৌষ্ঠ হয়েও দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া এখনো বিএনপি’র নেতাকর্মীদেরকে দিক নিদের্শনা দিয়ে যাচ্ছেন। তিনি ৩ বার রাষ্ট্রপরিচালনা করেছেন তার নেতৃত্বে দেশে উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় ছিলো। যেটা সারা দেশ সহ বিশ্ববাসী জানে। এই অবৈধ সরকারের মত ১০ টাকা কেজি চাউল খাওয়ানোর কথা বলে ৭০ টাকায় পরিনত করেনি।
এ সময় নেতা কর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন, সংগঠনের বিষয় আপনাদের যদি কিছু জানার থাকে তাহলে আমাদের সাথে সমন্বয় করে সমাধান করুন। কোন বিভ্রুিন্তর সৃষ্টি করে তৃনমূলকে হতাশ করবেন না। তিনি আরও বলেন, আপনারা যারা প্রবীন নেতা রয়েছেন তাদেরকে আহবান করবো নবীনদের কাছে দলের সঠিক তথ্য তুলে ধরুন যাতে করে আগামী দিনে সঠিক ভাবে দলের হাল ধরতে পারে। সেই সাথে বুধবার মহানগর বিএনপি’র কর্মসূচীতে সকলকে উপস্থিত থাকার আহবান জানান।
মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এটিএম কামাল বলেন, দলের প্রয়োজনে আমি একা আন্দোলন সংগ্রাম করে জেল খাটিনি। বিএনপি করার অপরাধে অনেক নেতাকর্মীদেরকেই জেল জুলুম সহ্য করতে হয়েছে। ১/২ জন নেতা ছিলেন যাদের বিরুদ্ধে মামলা থাকার পরও শহরে উন্মোক্ত ঘুরে বেড়িয়েছেন্ নাসিম ওসমানের মেয়ের বিয়েতে আয়েশ করে অনুষ্ঠান খেয়েছেন। এ সময় নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন, যারা দলের মধ্যে থেকে বিপদগামী হয়েছেন তারা এক সময় বুঝতে পারবেন। এই সকল বিপদগামী নেতাদের কারণে আপনারা বিভ্রান্ত হবে না। আপনারা মূল¯্রােতের মধ্যেই রাজনীতি করুন দল আপনাকে মূল্যায়ন করবে। বয়সের কারনে প্রকৃতির নিয়মের এক সময় অবশরে যেতে হবে।  আপনারাই শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের আদর্শের সৈনিক হিসেবে দলের দায়িত্ব গ্রহন করবেন। যারা দলের বাহিরে রাজনীতি করে এক সময় তারা আস্থা খুরে পরবে। কারন চেয়ার কারো জন্য খালি থাকে না। দেশনেত্রী এড. আবুল কালাম  এর নেতৃত্বে মহানগর বিএনপি’কে শক্তিশালী করার নির্দেশ প্রদান করেছেন। যারা আবুল কালাম এর নেতৃত্বকে অমান্য করছেন তারা দেশনেত্রীর নির্দেশকে অমান্য করছেন। এখনো সময় আছে ব্যক্তি স্বার্থের উর্দ্ধে দলের প্রয়োজনে রাজনীতি করুন।
এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন, মহানগর বিএনপি’র কোষাধক্ষ মনিরুজ্জামান মনির, বিএনপি নেতা এড. আনিছুর রহমান মোল্লা, মহানগর স্বেচ্ছা সেবক দল নেতা মাকিদ মোস্তাকিম শিপলু, মহানগর শ্রমিক দলের আব্দুল খালেক, আনিসুর রহমান জুয়েল, সদরথানা শ্রমিক দলের সাধারণ সম্পাদক আজিম সরদার, সাংগঠনিক সম্পাদক কামাল মোল্লা সহ বিভিন্ন থানা ও ওয়ার্ড শ্রমিক দলের নেতাকর্মীরা।
আলোচনা শেষে বন্দর থানা শ্রমিক দলের কমিটি ঘোষনা করা হয়, যেখানে আব্দুল আহাদ হোসেন লিটন সভাপতি, কবির হোসেন মোল্লা সহ-সভাপতি,  অজিত দাস সাধারণ সম্পাদক, দেলোয়ার হোসেন চৌধুরী যুগ্ম-সম্পাদক, তাওলাদ হোসেন সাংগঠনিক সম্পাদক পদে দায়িত্ব গ্রহন করেন।

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম