Thu, 23 Feb, 2017
 
logo
 

গণপদত্যাগ করবে না.গঞ্জ বিএনপির নেতাকর্মী!

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ : তৃণমূলকে প্রাধান্য না দিয়ে কেন্দ্র থেকে কমিটি চাপিয়ে দেয়া হলে গণ-পদত্যাগ করার ঘোষণা দিয়েছেন নারায়ণগঞ্জ বিএনপির তৃণমূল থেকে শুরু করে অনেক নেতাকর্মী।

তবে কেউ কেউ কেন্দ্রের প্রতি এখনও আস্থাশীল। কেন্দ্রীয় বিএনপি যে সিদ্ধান্ত নিবেন তা মেনে নিতেও প্রস্তুত অনেকে।

এদিকে গত কদিন ধরেই নারায়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগর কমিটি নিয়ে জোড় গুঞ্জন চলছে। বলা হচ্ছে সিটি করপোরেশন নির্বাচনে এখানকার শীর্ষ ৩ নেতা দলীয় প্রার্থীর পক্ষে সেভাবে কাজ না করে আওয়ামী লীগের প্রার্থী আইভী পক্ষ নেন। যার ফলে শাস্তির স্বরূপ এখানকার শীর্ষ নেতা তৈমূর আলম খন্দকার, অ্যাড কালাম, ও গিয়াসউদ্দিনকে পদচ্যুত করা হবে বলে গুঞ্জন উঠে। এ নিয়ে বেশ
কিছুদিন ধরেই নারায়ণগঞ্জ বিএনপির মধ্যে চলছে আলোচনা-সমালোচনা।

বলা হচ্ছে নারায়ণগঞ্জ বিএনপিতে নতুন নেতৃত্ব আনা হবে। এরমধ্যে জেলা ও মহানগর বিএনপির কমিটিতে পুরোনদের কাছ থেকে দায়িত্ব কেড়ে নিয়ে তা নতুনদের হাতে তুলে দেওয়া হবে। এমন খবরে ক্ষুব্ধ তৃণমূল বিএনপি।

সূত্র বলছে, সিটি করপোরেশন নির্বাচনকে কেন্দ্র করেই এই রদবদল করা হবে। দলীয় প্রধান নারায়ণগঞ্জ বিএনপির দায়িত্বপ্রাপ্তদের প্রতি অসন্তোষ প্রকাশ করায় তাদেরকে শাস্তি স্বরূপ পদচ্যুত করা হচ্ছে।

এ ব্যাপারে নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির প্রস্তাবতি সহসভাপতি জান্নাতুল ফেরদৌস বলেন, সিটি করপোরেশন নির্বাচনে দলীয় প্রার্থী নির্বাচন ঠিক হয় নি। যার জন্য পরাজয় বরণ করতে হয়।

নতুন কমিটি গঠন করা প্রসঙ্গে ফেরদৌস বলেন, নতুন যে কমিটি গঠনের চিন্তা ভাবনা করা হচ্ছে তা নিয়ে তৃণমূলের সাথে আলোচনা করা উচিৎ। দলকে শক্তিশালী করতে হলে নতুন পুরাতন সবাইকে নিয়েই কমিটি করতে হবে। তৃণমূলের সাথে যদি আলোচনা না করে কেন্দ্র থেকে কমিটি চাপিয়ে দেয়া হয় তাহলে আমরা গণপদত্যাগ করবো।

তবে, নগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এটিএম কামাল জান্নাতুল ফেরদৌসের বক্তব্যের সাথে দ্বিমত পোষণ করে জানিয়েছেন বেগম খালেদা জিয়া যে সিদ্ধান্ত দিবেন তা মাথা পেতে নেব।

এটিএম কামাল বলেন, আমরা বেগম জিয়াকে কাউন্সিলের মাধ্যমে সকল সিদ্ধান্ত নেয়ার ক্ষমতা দিয়েছি। তাই, তিনি যে সিদ্ধান্ত নিবেন তা আমরা মাথা পেতে নেব। তিনি কখনোই এমন কোন সিদ্ধান্ত নিবেন না যা দলের ক্ষতি হয়।

তিনি বলেন, কমিটি এখনও গঠন হয় নি। তবে কমিটি হবে তা পক্রিয়াধীন। আর সেটি তৃণমূলের কথা মাথায় রেখেই করা হবে বলে আমি আশা করি।

এদিকে ফেরদৌস বলেন, পদ বেচা কেনার কারণে দলে শক্তিশালী নেতা আসছে না। পদ নিয়ে অনেক নেতাই ঘরে বসে থাকেন। তারা মাঠেও আসেন না। কারণ, তারা তো তৃণমূল থেকে উঠে আসে নি। তারা তো টাকায় পদ কিনেছেন। এসব পদ বেচা কেনা বন্ধ করা উচিৎ। তা না হলে দল শক্তিশালী করা সম্ভব নয়।

অপরদিকে কামাল বলেন, নেত্রী কখনোই ভুল সিদ্ধান্ত নিতে পারেন না। তিনি যে সিদ্ধান্ত নিবেন তা অবশ্যই দলের ভালোর জন্য নিবেন। পদ বেচা কেনার প্রশ্নই উঠে না। আমরা বেগম জিয়ার উপর আস্থাশীল। তিনি নারায়ণগঞ্জ বিএনপির কমিটি গুলশান বসে হোক কিংবা কাউন্সিল করে হোক, মোট কথা তিনি যেভাবেই কমিটি গঠনের সিদ্ধান্ত দিবেন আমরা তাই মাথা পেতে নেব।

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম ২৪