Tue, 17 Jan, 2017
 
logo
 

পুলিশের লাঠিচার্জে পন্ড বিএনপি’র মিছিল ॥ আটক ৪

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ : বিএনপির ঘোষিত ‘গনতন্ত্র হত্যা দিবস’ এ  কেন্দ্রীয় কর্মসূচী অনুসারে জেলা শহরে বিএনপি ও  যুবদলের মিছিল পুলিশের লাঠি চার্জে পন্ড হয়েছে।

এ সময় পুলিশ নব নির্বাচিত কাউন্সিলর যুবদল নেতা খোরশেদ, মহানগর যুবদলের যুগ্ম-আহবায়ক রানা মুজিব, যুবদল নেতা আলামিন খান ও বাদশা মিয়াকে আটক করে।

পুলিশের লাঠিচার্জে পন্ড বিএনপি’র মিছিল ॥ আটক ৪

পুলিশের লাঠিচার্জে বিএনপি নেতা এড. আবু ইউসুফ খাঁন টিপু, আনোয়ার হোসেন প্রধান, জাহিদ প্রধান, যুবদল নেতা জুলহাস ও মহানগর ছাত্রদলের যুগ্ম-আহবায়ক রাশেদুর রহমান রশু, মহানগর বিএনপি নেতা রুহুল আমিন, রিফাত আহমেদ, সিদ্ধিরগঞ্জ থানা যুবদলের সহ-সভাপতি মঞ্জুরুল আলম মুছা আহত হয়। আহতদের মধ্যে মঞ্জুরুল আলম মুছাকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় নারায়ণগঞ্জের ১০০ শয্যাবিশিষ্ট হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে।

অন্যদিকে বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে ৩টায় নারায়ণগঞ্জ শহরের গুলশান হলের সামনে যুবদলের মিছিলে এবং ডিআইটি এলাকায় বিএনপি কার্যালয়ের নিচে নেতাকর্মীদের সমাগমে এ লাঠিচার্জ করা হয়।

পুলিশের লাঠিচার্জে পন্ড বিএনপি’র মিছিল ॥ আটক ৪

তবে পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, বিশৃঙ্খলা তৈরির চেষ্টা করায় নেতাকর্মীদের রাস্তা থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে।

জানা গেছে, বিএনপি নেতা এনসিসি ১৩ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মাকছুদুল আলম খন্দকার খোরশেদের নেতৃত্বে একটি মিছিল শহরের মন্ডলপাড়া পুল এলাকা থেকে বের হয়। মিছিলটি ডিআইটি বাণিজ্যিক এলাকায় জেলা বিএনপির কার্যালয়ের সামনে আসার পথে গুলশান হলের সামনে পৌঁছালে পুলিশ বাধা দেয়। এসময় ধস্তাধস্তি শুরু হলে পুলিশ বেধড়ক লাঠিচার্জ করতে থাকে। এতে আহত হন যুবদল নেতা জুলহাস ও মহানগর ছাত্রদলের যুগ্ম-আহবায়ক রাশেদুর রহমান রশুসহ ১০-১২ জন।

এ সময় পুলিশ খোরশেদ, মহানগর যুবদলের যুগ্ম-আহবায়ক রানা মুজিব, যুবদল নেতা আলামিন খান ও বাদশা মিয়াকে আটক করে। একই সময়ে বিএনপি কার্যালয়ের নিচে দলের নেতাকর্মীরা জড়ো থাকলে সেখানেও পুলিশ লাঠিচার্জ করে। এতে সিদ্ধিরগঞ্জ থানা যুবদলের সহ-সভাপতি মঞ্জুরুল আলম মুছা গুরুতর আহত হন। তাকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় নারায়ণগঞ্জের ১০০ শয্যাবিশিষ্ট হাসপাতালে পাঠানো হয়।

পুলিশের লাঠিচার্জে পন্ড বিএনপি’র মিছিল ॥ আটক ৪

আটকের সময় খোরশেদ গণমাধ্যম কর্মীদের বলেন, বিনা উস্কানিতে পুলিশ আমাদের শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিতে লাঠিচার্জ করেছে।

এ ঘটনায় মহানগর বিএনপি নেতা সাখাওয়াত হোসেন খান এক প্রতিক্রিয়ায় জানান, মিছিলে লাঠি চার্জ ও নেতাকর্মীদের গ্রেফতার করে পুলিশ আবারও প্রমাণ করলো আজকের দিনটিতে অতীতে কিভাবে গণতন্ত্রকে হত্যা করা হয়েছে। আমরা এ দিনটিকে গণতন্ত্রের কালো দিন আখ্যা দিয়ে ঘৃণাভরে স্মরণ করি।

নগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এটিএম কামাল বলেন, শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিতে পুলিশ বিনা উস্কানিতে হামলা করে  অগণতান্ত্রিকভাবে নেতাকর্মীদের গ্রেফতার করেছে।  

এ বিষয়ে সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আসাদুজ্জামান (রাত সাড়ে ৮টায়) ৪ জনকে আটকের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, আটকদের জিজ্ঞাসাবাদ শেষে ছেড়ে দেয়া হবে।

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম ২৪