Thu, 24 Jan, 2019
 
logo
 

মেয়রের নির্যাতনের শিকার দুই শিশু কিশোর

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জ সোনারগাঁও পৌরসভার মেয়র সাদেকুর রহমান এক শিশু ও এক কিশোরকে লাঠি দিয়ে মারধর করেন আর বলেন, এমনে চালায় গাড়ি। তার এমন মারধর যা বর্বরতাকেও হার মানায়।
শনিবার (১৫ ডিনসম্বর) সোনারগাঁও পৌরসভার লোক ও কারুশিল্প যাদুঘরের সামনে এই ঘটনা ঘটে। হাউ মাউ করে কাঁদছে  শিশু ও কিশোর। তবুও নাছোরবান্দা বদমেজাজী মেয়র সাদেকুর রহমান অমানবিকভাবে জনসম্মুখে নির্যাতন করে যাচ্ছেন তাদের।
 
এমন একটি ভিডিও ফেসবুকে ভাইরাল হয়ে পড়েছে। কিশোরটি একটি অটোরিক্সা চালক। সে কোন চোর ছিনতাইকারীও ছিল না। কিশোরটির ছোট ভাই হাউ মাউ করে কাঁদলেও মেয়র সাদেকুর রহমান তার মারধর চালিয়ে যায়। আল্লাহগো আল্লাহগো বলে কাঁদলেও থামেনি মেয়র। এ এক বর্বরতাকে হার মানিয়েছে তার এই অমানবিক নির্যাতন। মেয়র কখনও লাথি মেরেছেন, কখনও হাতে থাকা লাঠি দিয়ে পিটিয়েছেন। আর বলছেন গাড়ি এভাবে চালায়? কিন্তু তিনি একবারও ভাবেননি দুটি শিশু এ বয়সে কেন অটোরিক্সা চালক হলো? মেয়র হিসেবে এই দুটি শিশুর প্রতিও মেয়রের দায়িত্ব ছিল। তারা তো এ বয়সে স্কুলে যাওয়ার কথা। চোর ছিনতাইকারী পকেটমার তো হয়নি। ওই সময় আশপাশের লোকজন তাকে নিবৃত করার চেষ্টা করলেও তিনি থামেননি। কিশোরটি হাউ মাউ করে কেঁদে কেঁদে মেয়র সাদেকুর রহমানের পায়ে ধরছিল কিন্তু তবুও মেয়র মারধর করছেন। মেয়রের সঙ্গে শিশুটিকে মারতে দেখা গেল কন্ঠ শিল্প রিপনকেও। অথচ রিপন একজন সাংস্কৃতিকমনা ব্যক্তি। শিশুটি বাঁচানোর চেষ্টা না করে উল্টো মেয়রের নির্যাতনের দিকে ঠেলে দিতেও দেখা গেল ভিডিওতে তাকেও। এভাবেই সমাজে গরীব মার খায়। অসহায়ের অসহায়ত্বও মানুষের মনে নাড়া দেয়না। এমন সব মন্তব্য ফেসবুকে এই ভিডিওতে ওঠে আসছে।
 
তবে ওই দুই শিশু ও কিশোরের খোঁজ দিতে পারেননি কেউ। তবে কিশোরটি একটি অটো চালক। তার সঙ্গে বসা ছিল তারই ছোট ভাই একজন শিশু। এমন একটি ভিডিও ফেসবুকে ভাইরাল হয়ে পড়েছে। এমন বর্বরতার বিচার দাবিতেও ফেসবুকে ভাইরাল হয়ে গেছে।
 
জানাগেছে, সোনারগাঁও আমিনপুর ইউনিয়ন পরিষদের ১৮ বছর তিনি চেয়ারম্যান পদে দায়িত্ব পালন করেছিলেন। তারপর তিনি টানা দুই মেয়াদে মেয়র পদে দায়িত্ব পালন করছেন। এলাকায় বেশ জনপ্রিয় হলেও তিনি বদমেজাজী একজন মেয়র হিসেবেই পরিচিত। তিনি আইন কানুন তোয়াক্কা করেন না। ওই সময় থেকেই তিনি বিচার শালিশির নামে মানুষের উপর নির্যাতন করে আসছিলেন। তবে বয়সের ভারে নুব্জ হলেও তেজ কমেনি এই মেয়রের। নিজেই এখন রাস্তা ঘাটে অসহায় শিশু কিশোরদের মারধর করতে শুরু করে দিলেন। এমনটাই মন্তব্য আসছে ফেসবুকে এই ভিডিওতে

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম