Fri, 14 Dec, 2018
 
logo
 

সাইনবোর্ডে সপ্তাহকাল ধরে অবরুদ্ধ এক ব্যবসায়ী পরিবার

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: ঢাকা চট্রগ্রাম মহাসড়কের পাশ্বে সাইনবোর্ড এলাকায় এক ব্যবসায়ি পরিবারকে প্রায় সপ্তাহকাল ধরে অবরুদ্ধ করে রেখেছে সন্ত্রাসীরা। এমন কি তাদের উপর হামলা চালিয়ে ভাংচুর ও মালামাল লুটপাট করার ঘটনা ঘটেছে। এব্যাপারে ভুক্তভোগী পরিবারের সদস্য গোলাম রাব্বী নিজেদের নিরাপত্তা চেয়ে থানায় থানায় জিডি দায়ের করেছে। জিডি নং : ৪২। দারোগা কবির উদ্দিন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ঐ পরিবারের অবরুদ্ধ থাকার বিষয়টি সত্যতা পেয়েছেন।


গোলাম রাব্বী অভিযোগ করেন,গত পহেলা ডিসেম্বর রাতের আঁধারে ফজলুল কবিরের নেতৃত্বে প্রায় দেশ শতাধিক সশস্ত্র সন্ত্রাসী সাইনবোর্ড তাদের মালিকানাধীন ৪৮শতাংশ জমি জোর পূর্বক দখলে নেয়। রাতের আধারে তারা জমিতে টিনের বাউন্ডারী দিয়ে দেয় । বাউন্ডারীর ভেতরে গোলাম রাব্বিদের ১০/১২টি মালবাহি গাড়ি ছিল। সন্ত্রাসী দখলের সময় পরিবহন শ্রমিকদের বেদম মারধর করে এবং লুটপাট চালায়। বাউন্ডারীর দেয়াার কারনে তারা অবরুদ্ধ হয়ে পড়ে। এমনকি মালবাহি গাড়ি চলাচলের পথ রুদ্ধ হয়ে যাওয়ায় তাদের প্রতিদিন লোকসান দিতে হচেছ প্রায় ৩ লাখ টাকা । গোলাম রাব্বি ডেমরা থানায় অভিযোগ দেয়ার পর দারোগা কবির উদ্দিন ঘটনাস্থলে গিয়ে জমি দখলের বিষয় এবং অবরুদ্ধ হওয়ার বিষয়টি সত্যতা খুঁজে পায়।
ভুক্তভোগীদের অভিযোগ, প্রায় ১৫ বছর আগে পারিজাত কোম্পানী থেকে গোলাম বাব্বীর পিতা আব্দুল মান্নান ভুইয়া ৮৫ শতাংশ জমি ক্রয় করেন। জমিটি তখন ডোবা ছিল। এর মধ্যে গত বছর ৬৩ শতাংশ জমি ভরাট করে। নিজেরা দেখা শুনা করে আসছে । ভরাট করা জমিতে তাদের নিজস্ব মালবাহি পরিবহন রাখা হতো। হঠাৎ করে ফজলুল কবিরের নেতৃত্বে প্রায় দেড় শতাধিক সশস্ত্র লোক রাতের আঁধারে গোলাম রাব্বিদের ভরাট করা জমির ৪৮শতাংশ দখলে নেয়। এবং তাতে বাউন্ডারি দিয়ে অবরুদ্ধ করে ফেলে।
স্থানীয় লোকজনের অভিযোগ, ভুমি দস্যু ও দখলদার ফজলে কবির ও তার লোকজন বিভিন্ন সময়ে প্রশাসনের নাম ব্যবহার করে সাইনবোড এলাকায় জমি দখল হামলা ভাংচুর ও সন্ত্রাসী ঘটনা ঘটিয়ে যাচেছ । ফজলে কবিরের পক্ষ নিয়ে একশ্রেনীর প্রতারক কখনো নিজেকে সাবেক র‌্যাব কর্মকর্তা কখনো সাবেক মেজর পরিচয় দিয়ে অহরহ প্রতারনা করে আসছে। যার সর্বশেষ শিকার হলো গোলাম রাব্বি পরিবার। ভুক্তভোগীদের দাবী , জমি দখলদারদের গ্রেফতারপূর্বক আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির ব্যবস্থা করে ডেমরা থানা পুলিশ।

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম