Mon, 19 Nov, 2018
 
logo
 

‘প্রতিবাদ’ই কাল হলো হাসিনা বেগমের, ফুটন্ত পানিতে ঝলসে দিলো শরীর

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে লুটপাট ও ভাঙচুর করছিলেন একটি দল যুবক। নীরবে দাঁড়িয়ে এ দৃশ্য দেখছে শত শত মানুষ। কিন্তু প্রতিবাদ করেছিলেন শুধু চা দোকানী হাসিনা বেগমই। আর এটাই কাল হয়েছে ওই নারীর। প্রতিবাদ করায় ফুটন্ত পানিতে ঝলসে দেওয়া হয়েছে শরীর।

গত মঙ্গলবার (৬ নভেম্বর) রাতে ফতুল্লা থানায় এ দাবি করে মো. সাহাবুদ্দিন চৌধুরী নামের এক ব্যক্তি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। এর আগে ৫ নভেম্বর সন্ধ্যায় ফতুল্লায় পশ্চিম দেওভোগের লিচুবাগ এলাকায় ওই ঘটনা ঘটে।
‘প্রতিবাদ’ই কাল হলো হাসিনা বেগমের, ফুটন্ত পানিতে ঝলসে দিলো শরীর
এঘটনায় আসামীরা হলেন দেওভোগের পশ্চিম নগর এলাকার মো. কামাল হোসেনের ছেলে আরিফ, আবুল হোসেন খোকার ছেলে আহাদ, দেলোয়ার হোসেন দেলুর ছেলে রিয়াদ, পূর্ব নগর এলাকার মানিক মিয়ার ছেলে মুন্না, বাদল মিয়ার ছেলে তন্ময় ও ইউসুফ মিয়ার ছিলে ভুবন।

অভিযোগে উল্লেখ করা হয়, ৫ নভেম্বর সন্ধ্যায় ৬টায় পূর্ব শত্রুতার জের ধরে মো. নাভিদ নামের এক কিশোরকে মারধর করে মারামারি হয়। এঘটনার জেরধরে সাড়ে ৬টায় মো. নাভিদের বাসায় হামলা করে ২০ থেকে ২২ জনের একটি দল। দুইটি বাড়ি ও একটি কারখানায় ব্যাপক ভাঙ্গচুর চালান। এসময় বাড়ির পাশের চা ও পিঠার দোকানী হাসিনা বেগম এর প্রতিবাদ করলে তার উপর ফুটন্ত পানি ঢেলে দেওয়া হয়। এতে ওই নারীর ডান পায়ের উরু থেকে পায়ের গোড়ালী পর্যন্ত ঝলসে গেছে।

এবিষয়ে ফতুল্লা মডেল থানার পরির্দশক (ওসি) শাহ মো. মঞ্জুর কাদের বলেন, অভিযোগের তদন্তের জন্য আমাদের এসআই মজিব গিয়েছিলেন। কিন্তু এখন কোন গ্রেপ্তার হয়নি।

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম