Fri, 14 Dec, 2018
 
logo
 

শীতলক্ষ্যা সেতুর ঘোষণায় আনন্দে আত্মহারা হওয়ার কিছু নেই: বন্দর নাগরিক কমিটি

বন্দর করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: বন্দর নাগরিক কমিটির সাধারণ সম্পাদক কবি এরশাদুল কবির সোহেল এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানান শীতলক্ষ্যা সেতুর ঘোষণায় আনন্দে আত্মহারা হওয়ার কিছু নেই, বন্দরবাসি শীতলক্ষ্যা সেতু দীর্ঘ ৫০ বছর যাবত দেখে আসছে,
যারা অত্র অঞ্চলে ক্ষমতায় ছিলেন লুটপাট, চাঁদাবাজি, সন্ত্রাস ছাড়া কিছুই করেন নাই, সৌভাগ্যক্রমে নারায়ণগঞ্জ পৌরসভা সিটি কর্পোরেশনে রূপান্তরিত হয়েছে এর ফলে বন্দরবাসি উন্নয়নের চিত্র দেখছে, তিনি বলেন নারায়ণগঞ্জের উত্তরাঞ্চল কাঁচপুর থেকে কাঞ্চন পর্যন্ত ৪টি সেতু দৃশ্যমান আছে এ কৃতিত্ব কার আমরা জেলাবাসি জানি এবং কাঁচপুর থেকে মদনগঞ্জ প্রায় কাছাকাছি দূরত্বে স্বাধীনতার পর থেকে আজ পর্যন্ত একটি সেতু বাস্তবায়ন হয়নি ব্যর্থতাটা আশা করি নারায়ণগঞ্জ ৫ আসনের অতীত-বর্তমানের সাংসদরা নিবেন না। নাসিক মেয়র সেতু দিচ্ছেন এটা আনন্দের সংবাদ হলেও আমরা আশাহত, বারবার রাজনীতির কাছে হেরেছি। বাস্তবায়নের পরেই হাততালি দিবো, ফুলেল শুভেচ্ছা জানাবো আমাদের প্রাণপ্রিয় মেয়র মহোদয়কে, কারণ বলা যায় না বিগত দুর্নীতিবাজ সরকারের নবীগঞ্জ সেতুর মতো এটাও মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর হতে পারে নির্বাচনপূর্ব রাজনৈতিক কৌশল।
 
কদমরসুল সেতুর একনেক এ অনুমোদন পাওয়ায় বন্দর নাগরিক কমিটির সভাপতি ডাঃ আব্দুস সাত্তার সন্তুষ্টি প্রকাশ করেন এবং মাননীয় মেয়র এবং তাঁর পরিবারের জন্য দোয়া প্রার্থনা করার জন্য নারায়ণবাসির কাছে আবেদন জানান। 
 
খবরে প্রকাশ, শীতলক্ষ্যা নদীতে কদম রসূল নামে যে সেতু হবে, ৯ই অক্টোবর মঙ্গলবার সেই সেতুর অনুমোদন দিয়েছে একনেক। ঐ দিন সকালে রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে একনেক বৈঠকে ৫৭৯ কোটি ৮০ লক্ষ টাকা বরাদ্ধ দেয় সংস্থাটি

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম