Wed, 19 Sep, 2018
 
logo
 

শিক্ষার্থীদের বিরুদ্ধে মামলার প্রতিবাদে বাম গণতান্ত্রিক জোটের ৫ নেতার যৌথ বিবৃতি

সিপিবি, বাসদ, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টি, বাসদ (মার্কসবাদী) ও সমাজতান্ত্রিক আন্দোলনের নারায়ণগঞ্জ জেলা নেতৃবৃন্দ এক যুক্ত বিবৃতিতে বলেছেন, শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে ভীত হয়ে এযাবৎ কালের অপরাপর আন্দোলন সংগ্রামগুলোর মতো ‘নিরাপদ সড়ক চাই’ দাবীর আন্দোলনকেও সরকার দমন নিপিড়নের মাধ্যমে ধুলিস্যাৎ করে দিতে চায়।

নেতৃবৃন্দ বলেন, আন্দোলনকারীদের নামে মিথ্যা মামলা দিয়ে, তাদের উপর হামলা করে, গ্রেফতার করে দেশের সর্বস্তরের মানুষের সমর্থিত এ আন্দোলনকে দাবিয়ে রাখা যাবেনা। কেননা নিরাপদ সড়কের দাবী কেবল শিক্ষার্থীদের নয় বরং এ দাবী এখন বাংলাদেশের সমগ্র মানুষের।

শিক্ষার্থীদের নিরাপদ সড়ক চাই দাবীতে আন্দোলনের ঘটনায় নারায়ণগঞ্জের চাষাড়ায় বেআইনীভাবে অবস্থান, ভাঙচুর ও রাষ্ট্রীয় কাজে বাধা দেয়া এবং আর্থিক ক্ষয়ক্ষতির ভুয়া অভিযোগ তুলে নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানায় ১২ আগস্ট রাতে সরকারের পক্ষ থেকে একটি মিথ্যা মামলা দায়ের করায় গভীর ক্ষোভ প্রকাশ করে নেতৃবৃন্দ বলেছেন জনগণের উপর দমন নিপিড়ন করে কোন স্বৈরশাসকই তাদের ক্ষমতকে স্থায়ী করতে পারে নাই। এ সরকারও নিশ্চয় ফ্যাসিবাদী কায়দায় দমন নিপিড়নের পথ অবলম্বন করে তাদের ক্ষমতাকেও চীরস্থায়ী করতে পারবেন না।

নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে শিক্ষার্থীদের উপর দায়ারকৃত মিথ্যা মামলা প্রত্যারের দাবী করে বলেন, আওয়ামী লীগই বাংলাদেশের শেষ সরকার নয়, সরকার যদি ফ্যাসিবাদী কায়দায় দমন নিপিড়নের পথ পরিহার না করেন তবে শিক্ষার্থীদের নেতৃত্বে সরকার উৎখাতের আন্দোলন শুরু হয়ে গেলেও অবাক হওয়ার নিশ্চয় কিছুই থাকবেনা।

বিবৃতি প্রদানকারী নেতৃবৃন্দ হলেন, সিপিবি’র সভাপতি হাফিজুল ইসলাম, বাসদ-এর সমন্বয়ক নিখিল দাস, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারন সম্পাদক আবু হাসান টিপু, বাসদ (মার্কসবাদী) সমন্বয়ক মঞ্জুরুল হক মঞ্জু, বাংলাদেশ সমাজতান্ত্রিক আন্দোলনের সমন্বয়ক ধীমান সাহা জুয়েল।

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম