Fri, 17 Aug, 2018
 
logo
 

যে কারণে ‘বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা’ থেকে নাম হলো ‘শেখ রাসেল নগর পার্ক’

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: নগরীর জিমখানাতে তৈরী হচ্ছে দ্বিতীয় হাতির ঝিল। ইট পাথরের এই শহরে নগরবাসীর প্রকৃতির সাথে সম্পর্ক গড়তে তৈরী হচ্ছে এই পার্কটি। পার্কটির নির্মাণ কাজের শুরুতে বঙ্গমাতা ফজিলাতুননেছা পার্ক নামটি দেওয়া হয়। কিন্তু বর্তমানে সরকারি খাতায় পার্কটির নাম শেখ রাসেল নগর পার্ক হিসেবে অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।


এবিষয়ে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এএফএম এহতেশামূল হক বলেন, পার্কটির নাম শুরুতে বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা জন্য প্রস্তাবনা দেওয়া হয়। পরবর্তীতে বঙ্গবন্ধু মেমোরিয়াল ট্রাস্ট‘র কিছু নিয়ম-বিধি‘র জন্য প্রস্তাবিত নামটি পরিবর্তন করে পার্কটির নাম শেখ রাসেল নগর পার্ক রাখার অনুমোদন দেওয়া হয়।

এদিকে এই লেকটির মূল কাজ শেষ হয়ে গেছে। কিন্তু কাজ করার পর নতুন করে পার্কের সৌন্দর্য বৃদ্ধির কাজ শুরু করা হয়।

সিটি কর্পোরেশন সূত্র মতে, লেক বা পার্কটির কাজ এখন এমন ভাবে ডিজাইন করা হয়েছে যে এটা যখন জনগনের জন্য উম্মুক্ত করা হবে তখন এই পার্ক বা লেকটি হাতিরঝিল লেককেও ছাড়িয়ে যাবে। পরিবেশ হবে হাতির ঝিলের চেয়েও মনোরম। দেশের একটি অন্যতম আকর্ষণীয় পার্ক হিসাবে এটা বিবেচিত হবে এবং এই পার্ক দেখতে প্রতিদিন আসবে হাজার হাজার পর্যটক। তাই এখন শেখ রাসেল নগর পার্ক উম্মুক্ত করার অপেক্ষায় রয়েছে নগরবাসী।
যে কারণে ‘বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা’ থেকে নাম হলো ‘শেখ রাসেল নগর পার্ক’
উল্লেখ্য, নারায়ণগঞ্জ পৌরসভা থাকতেই মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভী জিমখানা বিনোদন কেন্দ্র ও লেক নির্মাণের পরিকল্পনা নেন। পরবর্তীতে সিটি কর্পোরেশন হওয়ার পর ২০১৫ সালের ৯ আগস্ট এনসিসি জিমখানা লেক উন্নয়ন ও সৌন্দর্যবর্ধনে মেসার্স রত্না এন্টারপ্রাইজের সঙ্গে চুক্তি করে, যার ব্যয় ধরা হয়েছে ৭ কোটি ৭৪ লাখ ৯৮ হাজার টাকা। চুক্তি অনুযায়ী এক বছরের মধ্যে, অর্থাৎ এ বছরের ৯ আগস্টের মধ্যে কাজ শেষ হওয়ার কথা থাকলেও পার্ক ও লেকের পরিবেশের আরো বেশী সৌন্দর্যমন্ডিত করার লক্ষ্যে তা নির্মাণ কাজের সময় পরিবর্তন করা হয়। যার কারণে চলতি বছরের শেষ নাগাদ পার্ক ও লেকের নির্মাণ কাজ পুরোপুরীভাবে শেষ হবে বলে জানা যায়। লেকের উন্নয়নকাজের মধ্যে থাকবে চারপাশে হাঁটা পথ, তিনটি ঘাটলা, দুটি বসার প্যাভিলিয়ন, দুটি অবলোকন ডেক, একটি পদচারীসেতু, শিশুপার্ক, পাবলিক টয়লেট ইত্যাদি।

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম