Fri, 17 Aug, 2018
 
logo
 

৩ বছরে বৃদ্ধি পেয়েছে আড়াই‘শ কোটি টাকার বাজেট, বাড়েনি সেবা!

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের বিভিন্ন অংশে উন্নয়নের কাজ সারাবছর ধরেই চলে। রাস্তা ও ড্রেন থেকে শুরু করে বিভিন্ন খাতে উন্নয়ন করলেও দূর্ভোগ কমছে না, বরং বাড়ছে।

ফুটপাতগুলোর উন্নয়নের ফলে হাঁটার রাস্তা বাড়লেও সেগুলো ব্যবহারের উপযোগী নয় বলে মনে করেন অনেক নাগরিক। এছাড়া সারা বছরই ছিল মশার উপদ্রব।

রোববার (১৫ জুলাই) নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের বেশ কয়েকটি এলাকার লোকজনের সাথে আলাপকালে এসকল সমস্যা তুলে ধরেন। তাদের দাবি, প্রতিবছর বাজেট বৃদ্ধি পেলেও, বাড়েনি সেবার মান।

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের বাজেট অনুসন্ধানে দেখা গেছে, ২০১৫-১৬ অর্থবছরে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের বাজেট ছিল প্রায় ৪‘শ ১৭ কোটি টাকা। ২০১৬-১৭ অর্থ বছরে এ বাজেট গিয়ে দাঁড়িয়েছে ৫‘শ ৫৮ কোটি টাকায়। আর সর্বশেষ ২০১৭-১৮ অর্থ বছরে ৬ ‘শ ৩৫ কোটি টাকা ছিল এ নগরীতে।
সিটি করপোরেশন সূত্র বলছে, আগামী বাজেট হবে ৭‘শ কোটি টাকার। যা অতিতের সকল বাজেটের রেকর্ড ভাঙ্গবে।

নগরীর ১২, ১৩ ও ১৪ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দারা জানান, বৃষ্টি হলেই তাদের এলাকায় জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয় কমপক্ষে দুই-তিন ঘণ্টা এবং কোনো কোনো এলাকায় চারদিন পর্যন্ত পানি জমে থাকে। সেইসাথে নিম্নমানের কাজেরও অভিযোগ রয়েছে। এছাড়া জলাবদ্ধতার কারণ হিসেবে নিয়মিত নর্দমা পরিষ্কার না করা; নর্দমায় ময়লা-আবর্জনা ফেলে রাখা; অপর্যাপ্ত নর্দমা; পুকুর, নদী-নালা ভরাট; ও নর্দমার ত্রুটিপূর্ণ ডিজাইনসহ নানা কারণের কথা জানিয়েছেন।

তারা আরো জানান, অধিকাংশ লোকাল রাস্তায় কোনো ফুটপাত নেই এবং যেগুলো আছে সেগুলোও চলাচল উপযোগী নয়। ফুটপাতের অধিকাংশই প্রভাবশালীদের দখলে। এছাড়া ফুটপাতগুলোতে ভাসমান দোকানদার, ভাঙা স্ল্যাব, যত্রতত্র গাড়ি পার্কিং, ময়লার স্তূপ, ফুটপাত দখল এবং ফুটপাতে নির্মাণাধীন কাজের সরঞ্জাম রাখা হয় বলে চলাচলে বিঘ্ন ঘটে।

এদিকে সিদ্ধিরগঞ্জ এলাকার বাসিন্দারা জানান, তাদের অঞ্চলে জলাবদ্ধতা আগের চেয়ে বেড়েছে। এছাড়া শব্দ দূষণের সাথে সাথে বেড়েছে ধূলাবালির পরিমাণও। শুধু তাই নয়, তাদের এলাকায় রোগ-ব্যাধির প্রকোপও বেড়েছে।

 

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম