Sat, 20 Oct, 2018
 
logo
 

১৬৪ ধারায় পিন্টুর জবানবন্দি ‘প্রবীরকে ৭ টুকরা করে সেপটিক ট্যাংকে ফেলে দিই’

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জের স্বর্ণ ব্যবসায়ী প্রবীর চন্দ্র ঘোষকে ৭ টুকরা করে হত্যার দায় স্বীকার করে আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন আসামী পিন্টু দেবনাথ।

শনিবার (১৪ জুলাই) বিকেলে নারায়ণগঞ্জ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মেহেদী হাসানের আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক এ জবানবন্দি রেকর্ড করা হয়।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের এসআই মফিজুল ইসলাম বলেন, পিন্টু আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে চাঞ্চল্যকর তথ্য দিয়েছে। নারীর প্রলোভন দেখিয়ে বন্ধু প্রবীরকে বাসায় ডেকে হত্যার পর লাশ ৭ টুকরা করে সেপটিক ট্যাংকে ফেলে দেয়ার বিষয়টি জানায়। অর্থ, বন্ধকি স্বর্ণালঙ্কার ও দোকান আত্মসাতের জন্য এ হত্যাকাণ্ড ঘটায় পিন্টু।

৫ দিন রিমান্ডের শেষ দিন ছিল আজ। গত মঙ্গলবার মামলার তদন্তকারী সংস্থা ডিবি ৫ দিনের রিমান্ডে নেয় পিন্টু দেবনাথ ও তার কর্মচারী বাপন ভৌমিককে। ডিবির জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায়ে শুক্রবার রাতে পিন্টু হত্যার দায় স্বীকার করে আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তীমূলক জবানবন্দি দিতে রাজি হয়। পরে শনিবার (১৪ জুলাই) বিকালে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ডিবির এসআই মফিজুল ইসলাম পিপিএম পিন্টুকে আদালতে নিয়ে আসে।

প্রসঙ্গত, নিখোঁজের ২১ দিন পর গত ৯ জুলাই রাত ১১টায় শহরের আমলপাড়া এলাকার রাশেদুল ইসলাম ঠান্ডু মিয়ার চারতলা ভবনের সেপটিক ট্যাংক থেকে প্রবীরের খণ্ডিত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।পিন্টু ওই বাড়ির দোতলার একটি ফ্ল্যাটে থাকত। ১৮ জুলাই রাত ৯টা দিকে প্রবীরকে মোবাইলে বাসা থেকে ডেকে নিজের ফ্ল্যাটে নিয়ে আসে পিন্টু।

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম