Wed, 24 Oct, 2018
 
logo
 

মেয়ে দিয়ে ফাঁসাতে গিয়ে দারোগা আটক


সিদ্ধিরগঞ্জ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: ‘পুলিশই জনতা-জনতাই পুলিশ’ এই শ্লোগানটি প্রত্যেকটি থানায় লেখা আছে। কিছু অসাধু পুলিশের কর্মকান্ডের কারণে সাধারন মানুষ পুলিশের শ্লোগানটির উপর বিশ্বাস হারিয়ে ফেলছে। নিজেদের স্বার্থের কারনে গোটা পুলিশ ডিপার্টমেন্টের উপর আস্থা রাখতে পারছেনা মানুষ।

কিছু পুলিশ সদস্য পুলিশের চাকুরীটাকে হাতিয়ার হিসেবে অপব্যবহার করে মানুষকে মেয়ে,মাদক দিয়ে ফাসানো যেন তাদের নেশায় পরিণত হয়েছে। তেমনি সিদ্ধিরগঞ্জ থানার একজন ব্ল্যাকমেইলকারী পুলিশের এএসআই মাশেকুরকে মেয়েসহ আটক করেছিলো সিদ্ধিরগঞ্জ হাউজিং এলাকাবাসী। জানা যায়, গতরাত বুধবার আনুমানিক রাত ৩ টার সময় সিদ্ধিরগঞ্জ থানার এএসআই মাশেকুর এক মেয়েকে দিয়ে হাউজিং এলাকার ফকিরবাড়ীর মৃত আব্দুল খালেকের ছেলে মাসুমকে ফাঁসানোর চেষ্টা করে। এএসআই মাশেকুর মাসুমকে বলে তুই বাঁচতে হলে ৫০ হাজার টাকা। এমন অনৈতিক টাকা দাবী করার সময় এলাকাবাসী টের পেয়ে এএসআই মাশেকুর ঐ নারীসহ ৪ জনকে আটক করে এলাকাবাসী। ৪ থেকে ৫ ঘন্টা আটকের পর সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ওসি অপারেশন আজিজুলের নেতৃত্বে পুলিশ তাদের উদ্ধার করে। মাশেকুর সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় যোগদান করার পর থেকে বিভিন্ অপরাধীদের সাথে সখ্যতা গড়ে তুলে। ঐ নারীকে দিয়ে আরো কয়েকজনকে ঠিক একইভাবে ব্ল্যাকমেইল করেছেন এএসআই মাশেকুর। মাশেকুরের অপকর্মে কথা লিখে শেষ করা যাবেনা। এতটাই বেপরোয়া হয়ে উঠে ছিলো মাশেকুরকে নিয়ে থানা পুলিশও অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছিলো। হাউজিং এলাকার কিছু বখাটে ছেলেদের দিয়ে সাধারন মানুষকে মাদক দিয়েও ফাঁসানোর কথা শুনা যাচ্ছে। এ অপরাধী পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে নারায়নগঞ্জ পুলিশ সুপার কঠোর ব্যবস্থা গ্রহন করবেন এমনটাই প্রত্যাশা এলাকাবাসীর।

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম