Mon, 28 May, 2018
 
logo
 

সোনারগাঁয়ে যুবলীগের কার্যালয় ভাংচুর ও লুটপাট

সোনারগাঁ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার বৈদ্যেরবাজার ইউনিয়ন যুবলীগের কার্যালয় ভাংচুর করার অভিযোগ উঠেছে প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় যুবলীগ নেতা নবী হোসেনের মা বাদি হয়ে থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন।

থানায় দায়ের করা লিখিত অভিযোগপত্রে বৈদ্যেরবাজার ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি নবী হোসেনের মা জাহানারা বেগম উল্লেখ করেন, তিনি উপজেলার বৈদ্যেরবাজার ইউনিয়নের আমিরাবাদ গ্রামের বাসিন্দা। তার পরিবারের সঙ্গে বাছেদ মেম্বারের পরিবারের সঙ্গে দীর্ঘ দিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। ১৮ এপ্রিল তার দেবর হযরত আলী ও ভাসুরের ছেলে মাঈন উদ্দিনের দোকান বাঁশের দোকান থেকে জোঁরপূর্বকভাবে বাশঁ, নগদ টাকা ও পুকুর থেকে মাছ ছিনিয়ে নেয়। পরে সোমবার রাতে আবারো বাছেদ মেম্বারের ছেলে আলমগীর হোসেন, আনিছ মিয়ার নেতৃত্বে তাদের সহযোগী মহসিন মিয়া, বাবু মিয়া, মোতালেব হোসেন, নাদিম মিয়া, আলী আকবর সহ ১০-১৫ জনের একদল বাহিনী দেশীয় অস্ত্র নিয়ে হামলা চালিয়ে নবী হোসেনের বাড়ি ঘরে ভাংচুর ও লুটপাট চালিয়ে তাদের বাড়ির পাশে থাকা বৈদ্যেরবাজার ইউনিয়ন যুবলীগের কার্যালয় ভাংচুর ও লুটপাট করে।

 

জাহানারা বেগম জানান, খামারগাঁও গ্রামের মিছিল আলীর ছেলে সানা উল্লাহ হত্যার ঘটনাকে কেন্দ্র করে আমার ছেলেকে মিথ্যা মামলা দিয়ে বাছেদ মেম্বার ও তার লোকজন ফায়দা লুটার জন্য প্রথমে আনন্দ বাজার হাট দখল করে নেয়। পরে আমার বাড়িঘর ভাংচুর করে তিনটি পুকুরের মাছ ছিনিয়ে নেয় এবং আমার দেবর ও ভাসুরের দোকানপাট লুটপাট করে। তিনি হত্যা মামলার সঙ্গে তার ছেলেকে নির্দোশ দাবী করে মামলাটি সুষ্টু তদন্ত করে প্রকৃত দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানান।

 

উপজেলা যুবলীগের সভাপতি রফিকুল ইসলাম নান্নু জানান, যুবলীগের কার্যালয় যারা ভাংচুর ও লুটপাট করেছে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য প্রশাসনকে জানানো হয়েছে।

সোনারগাঁ থানার পুলিশ পরিদর্শক (অপারেশন) আব্দুল জব্বার জানান, এ ঘটনায় লিখিত অভিযোগ নেওয়া হয়েছে। বিষয়টি তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম