Fri, 20 Jul, 2018
 
logo
 

গৃহবধূকে হত্যা চেষ্টার অভিযোগে স্বামী গ্রেফতার

রূপগঞ্জ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: রূপগঞ্জে দাবিকৃত যৌতুকের টাকা না পেয়ে স্বামীসহ শশুরবাড়ির লোকজন মোছলেমা আক্তার নামে এক গৃহবধূকে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে শ্বাসরোধে হত্যার চেষ্টা চালানো হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় গৃহবধূ মোছলেমা আক্তার বাদী হয়ে রূপগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করেন।

মঙ্গলবার সকালে স্বামী সেলিম মিয়াকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেফতারকৃত সেলিম মিয়া উপজেলার বানিয়াদী এলাকার মোহাম্মদ আলীর ছেলে। গৃহবধু মোছলেমা আক্তার সোনারগাঁ উপজেলার সাদিপুর এলাকার তোফাজ্জল হোসেনের মেয়ে।

 

নির্যাতিত গৃহবধূ মোছলেমা আক্তার জানান, গত ১১ বছর আগে মোছলেমা আক্তারের সঙ্গে সেলিম মিয়ার বিয়ে হয়। বিয়ের সময়ে নগদ এক লাখ ২৫ হাজার টাকাসহ সর্বমোট ৪ লাখ ৭৭ হাজার টাকার স্বর্ণালংকার ও আসবাবপত্র প্রদান করা হয়। বর্তমানে তাদের সংসারে মিম ও আলীফ নামে সন্তান রয়েছে।

গত কয়েকদিন ধরে স্বামী সেলিম মিয়া ও তার পরিবারের লোকজন গৃহবধূ মোছলেমা আক্তারকে তার বাবার বাড়ি থেকে আরো ৫০ হাজার টাকা যৌতুক এনে দিতে চাপ প্রয়োগ করে আসছে।

১৩ মার্চ রাতে স্বামী সেলিম মিয়াসহ শ্বশুর বাড়ির লোকজনের দাবিকৃত যৌতুকের টাকা এনে দিতে অস্বীকার করে। যৌতুকের টাকা এনে দিতে অস্বীকার করায় স্বামী সেলিম মিয়া, শ্বশুর মোহাম্মদ আলী, সোহেল, জুয়েল, জাহিদ ক্ষিপ্ত হয়ে গৃহবধূ মোছলেমা আক্তারের উপর অমানুষিক নির্যাতন চালায়। একপর্যায়ে স্বামী সেলিম মিয়া গৃহবধূ মোছলেমা আক্তারকে গলায় ওড়না পেচিঁয়ে হত্যার চেষ্টা চালায়। গৃহবধূ মোছলেমা আক্তারের ডাক-চিৎকারের আশপাশের লোকজন এগিয়ে এসে তাকে উদ্ধার করেন। এ ঘটনায় নির্যাতিত গৃহবধূ মোছলেমা আক্তার বাদী হয়ে রূপগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মঙ্গলবার সকালে সেলিম মিয়াকে পুলিশ গ্রেপ্তার করে।

রূপগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিরুজ্জামান মনির বলেন, এ ঘটনায় মামলা হয়েছে। গৃহবধূর স্বামী সেলিম মিয়াকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম