Wed, 26 Sep, 2018
 
logo
 

রূপগঞ্জে বাপেক্সের গ্যাস অনুসন্ধান

রূপগঞ্জ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: পূর্বাচল উপশহরের মাঝিপাড়া এলাকার গ্যাস ফিল্ডের পর এবার আরো তিনটি গ্যাস ক্ষেত্রের অনুসন্ধানে নেমেছে বাপেক্স।

রূপগঞ্জের ভোলাবো, ভুলতা ও রূপগঞ্জ সদর ইউনিয়নে এ অনুসন্ধান চলছে। মাঝিপাড়া এলাকার গ্যাস ফিল্ড জাতীয় গ্রীডে যুক্ত হওয়ার পরও রূপগঞ্জবাসীর কোন কাজে না আসায় ক্ষোভ রয়েছে স্থানীয়দের মাঝে। তবে বাপেক্স নতুন করে গ্যাস ক্ষেত্র অনুসন্ধানে নামায় স্থানীয়দের মাঝে আশার সঞ্চার হয়েছে বলে জানা গেছে। বাপেক্ষ বলছে, গ্যাস ক্ষেত্র তৈরি হবে কি-না তা এখনো অনিশ্চিত। ছয় মাসের অনুসন্ধান চলছে।

 

অনুসন্ধানে জানা গেছে, টানা কয়েক বছর অনুসন্ধান ও পরিক্ষা-নিরীক্ষার পর বিগত ২০১৪ সালে রাজউক পূর্বাচল উপশহরের মাঝিপাড়া এলাকায় গ্যাস ফিল্ড তৈরি করে বাপেক্ষ। তারই ধারাবাহিকতায় রূপগঞ্জের ভোলাবো, ভুলতা ও রূপগঞ্জ সদর ইউনিয়নে নতুন করে গ্যাস ক্ষেত্র অনুসন্ধানে নেমেছে বাপেক্স। গত বছরের অক্টোবর মাসে বাপেক্সের একটি প্রতিনিধি দল তিনটি ইউনিয়নে সমীক্ষা জরিপ পরিচালনা করেন।

 

বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম বিভাগের (বাপেক্সে) জনসংযোগ কর্মকর্তা জাহাঙ্গির কামাল বলেন, রূপগঞ্জের গ্যাস ফিল্ডটি রাজউকের অধীনে গড়া পূর্বাচল উপশহর এলাকার মাঝিপাড়ায় রয়েছে। এটি এশিয়ান হাইয়ের রাস্তা দিয়ে সরাসরি গাজীপুরের টঙ্গি থানা পর্যন্ত সংযোগ দেয়া হয়েছে। সাধারনত গ্যাস উত্তোলনের জন্য বাপেক্সের তত্বাবধানে নির্মাণ করা হয় তিন হাজার ছয়শত মিটার গভীর গ্যাস ফিল্ড।

 

তিনি আরো বলেন, গত বছরের অক্টোবর থেকে শুরু হয়ে ছয়মাসের কর্মসূচী। এতে ভূতাত্ত্বিক স্যাটেলাইট জড়িপের ভিত্তিতে রূপগঞ্জে উপজেলার ভুলতা, রূপগঞ্জ সদর ও ভোলাবা ইউনিয়নে নতুন করে অনুস্বন্ধান চলছে। এ কার্যক্রম গাজীপুরের কালীগঞ্জ গিয়ে শেষ হবে। এসব স্থানে প্রতি গর্তে ৬০ফুট গভীরে একটি বিস্ফোরক প্রেরণ করা হবে। পরে বিশেষ পদ্ধতিতে গ্যাসের উপস্থিতি টের পেলে সংশ্লিষ্ট বিভাগের সহযোগীতায় গ্যাস উত্তোলন কেন্দ্র হিসেবে গড়ে তোলা হবে।

সূত্র আরো জানায়, রূপগঞ্জের শীতলক্ষ্যার উভয় পাড়ে রয়েছে সহ¯্রাধিক শিল্প কারখানা। এসব শিল্পকারখানার গ্যাস সংকটের নানা অভিযোগ নিত্য দিনের। এছাড়াও জাতীয় গ্রিডে গ্যাস সংকট প্রকট আকার ধারন করলেও গ্যাসপাইপ স্থাপন অযুহাতে রূপগঞ্জের এ গ্যাস কাজে আসছে না। স্থানীয় সংসদ সদস্য গোলাম দস্তগীর গাজী (বীরপ্রতিক) বলেন, বর্তমান সরকার গ্যাসের চাহিদা বাড়ানোর লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছেন। সে কারনেই নতুন নতুন এলাকায় গ্যাস ক্ষেত্রের অনুস্বন্ধানে নেমেছেন বাপেক্স।

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম