Sun, 17 Jun, 2018
 
logo
 

বিদ্যালয়ের নৈশ প্রহরীকে পিটিয়ে আহত করেছে সন্ত্রসীরা

সোনারগাঁ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: বিদ্যালয় চলাকালানী সময়ে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার একটি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দপ্তরী-কাম-নৈশ-প্রহরীকে পিটিয়ে মারাত্মক ভাবে আহত করেছে ওই এলাকার কয়েকজন সন্ত্রাসীরা। এ বিষয়ে সোমবার দুপুরে সোনারগাঁ থানায় ও উপজেলা শিক্ষা অফিসারের কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়।

 

লিখিত অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে, উপজেলার ৬৮নং চেঙ্গাকান্দী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দপ্তরী-কাম-নৈশ-প্রহরী মাজহারুল ইসলামের ভাতিজা ওই বিদ্যালয়ের ৪র্থ শ্রেণির ছাত্র রাতুল হোসেন এর সঙ্গে চেঙ্গাকান্দী গ্রামের দেলোয়ার হোসেনের ছেলে ও মোগরাপাড়া এইচ.জি.জি.এস উচ্চ বিদ্যালয়ের ৬ষ্ঠ শ্রেণির ছাত্র লিমন হোসেনের সঙ্গে ঘুড়ি খেলা নিয়ে কথা কাটাকাটি হয়।

এর জের ধরে দেলোয়ার হোসেন, রায়হান মিয়া, সাইফুল ইসলাম, সেলুনা আক্তার, মুক্তা আক্তার, শিল্পি আক্তার সহ ৮/১০ জনের একদল সন্ত্রাসী বাহিনী হকিষ্টিক, রামদা, ছোড়া ও দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে বিদ্যালয় চলাকালীন সময়ে বিদ্যালয়ের কক্ষে ঢুকে  নৈশ প্রহরী মাজহারুল ইসলামের ভাতিজা রাতুল হোসেনকে বকা-ঝকা করে। মাজহারুল ইসলাম প্রতিবাদ করলে সন্ত্রাসী বাহিনী মাজহারুল ইসলামের উপর হামলা চালিয়ে পিটিয়ে মারাত্মক ভাবে আহত করে। এ সময় বাধা দিতে গিয়ে ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শাঈমা আক্তার আঘাত প্রাপ্ত হন। এ সময় শিক্ষার্থীরা আতঙ্কে দিকবেদিক ছুটাছুটি করতে থাকে। আহত মাজহারুল ইসলামকে সোনারগাঁ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে এলাকাবাসীরা।

 

আহত মাজহারুল ইসলাম বলেন, পূর্ব শত্রুতার জের ধরে দেলোয়ার হোসেন ও তার সহযোগীরা আমার উপর হামলা চালিয়ে বিদ্যালয় চলাকালীন সময়ে মারাত্মক ভাবে আহত করে। আমি এর ন্যায় বিচার চাই।

 

এ বিষয়ে জানতে চাইলে দেলোয়ার হোসেন ও রায়হান মিয়া বলেন, আমাদের নিজেদের মধ্যে সামান্য কথাকাটাকাটি হয়েছে। বিষয়টি বসে মিমাংসা করা হবে।

 

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শাঈমা আক্তার ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, বিদ্যালয়ের চলাকালীন সময়ে কতিপয় লোক যেভাবে হামলা চালিয়ে নৈশ প্রহরী মাজহারুল ইসলামকে পিটিয়ে মারাত্মক ভাবে আহত করেছে ঘটনাটি অত্যন্ত দুঃখ জনক। এ সময় ছাত্র ছাত্রীদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পরে। এ বিষয়ে শিক্ষামন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেন তিনি।

 

সোনারগাঁ উপজেলা শিক্ষা অফিসার আ.ফ.ম. জাহিদ ইকবাল বলেন, এ বিষয়ে লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

 

সোনারগাঁ থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোর্শেদ আলম বলেন, নৈশ প্রহরীকে পিটিয়ে আহত করার ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি গ্রহণ করা হচ্ছে। আসামীদের গ্রেফতারের জন্য পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে।

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম