Thu, 16 Aug, 2018
 
logo
 

পাবেলকে হত্যার চেষ্টা: ৫ দিনে কাউকে আটক করতে পারেনি পুলিশ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জ কলেজের সাবেক ভিপি মশিউজ্জামান পাবেলকে হত্যার চেষ্টার ঘটনা ৫ দিন অতিবাহিত হলেও এখনো কাউকে আটক করতে পারেনি ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশ। এদিকে অভিযোক্তরা দলবল নিয়ে মহড়া দেওয়ায় নিরাপত্তাহীনতায় পরিবারের সদস্য নিয়ে অন্যত্র উঠেছে ভুক্তভোগী।

সাবেক ভিপি মশিউজ্জামান পাবেল জানান, ১৯ ফেব্রুয়ারি সোমবার ভোর ৪টায় ঘুমের চোখে দেখি, আমাকে হত্যার উদ্দেশ্যে অস্ত্র হাতে দালানের কার্ণিসে অবস্থান করছে কিলার হাসানের অন্যতম সহযোগী মুসা। এসময় আমার চিৎকার শুনে এলাকাবাসী ও স্থানিয় লোকজন আসলে মুসা পালিয়ে যায়। এঘটনায় আমার ভাবি শিরিন আক্তারের ইন্দন রয়েছে।

তিনি আরো বলেন, পুলিশের কাছে ডায়রি করলেও তারা এখন পর্যন্ত কাউকে আটক করেনি। উল্ট কিলার হাসানের অন্যতম সহযোগী মুসা দলবল নিয়ে এলাকায় মহড়া করছে। তাই পরিবার নিরাপত্তাহীনতার জন্য এলাকা ছেড়ে এখন শশুর বাসায় অবস্থান নিয়েছি। এঘটনায় আমি মানসিক ও শারীরিক ভাবে ভেঙ্গে পড়েছি, কী করবো বুঝতে পারছি না।

এবিষয়ে ফতুল্লা মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মাজহারুল লাইভ নারায়ণগঞ্জকে বলেন, মুসা তার বাড়ির পাশে অবস্থানের সত্যতা পেয়েছি। তবে হাতে অস্ত্র ছিলো কী না, তা কেউ বলতে পারিনি।

ফতুল্লা থানার পরিদর্শক (ওসি) কামাল উদ্দিনের মোবাইল ফোনে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করলেও তিনি ফোন কলটি রিসিব করেনি।

প্রসঙ্গত, গত ১৯ ফেব্রুয়ারি রাতে ফতুল্লার পশ্চিম দেওভোগ মাদ্রাসা এলাকায় অবস্থিত নারায়ণগঞ্জ কলেজের সাবেক ভিপি এটিএম মশিউজ্জামান পাবেলের নিজ বাসায় হত্যার উদ্দেশ্যে অস্ত্র হাতে দালানের কার্ণিসে অবস্থান করার অভিযোগ উঠে কিলার হাসানের অন্যতম সহযোগী মুসার বিরুদ্ধে। এঘটনায় ২০ ফেব্রুয়ারি ফতুল্লা থানায় একটি সাধারণ ডায়রি করা হয়েছে।

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম