Tue, 12 Dec, 2017
 
logo
 

অবাধে গড়ে উঠছে মশার কয়েল কারখানা স্বাস্থ্য ঝুকিতে মানুষ


বন্দর করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: বন্দর উপজেলা প্রশাসনের নজরধারী না থাকার কারনে যেখানে সেখানে অবাধে গড়ে উঠছে নামে বেনামে নানা প্রকার মশার কয়েল কারখানা।

এমন অভিযোগ তোলেছে স্থানীয় এলাকাবাসীসহ সচেতন মহল। এর ধারাবাহিকতায় বন্দরে এক সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাশে তৈরী করা হচ্ছে বিষাক্ত ক্যামিকেল মিশ্রিত মশার কয়েল। বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, বিএসটিআই অনুমদন না নিয়ে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন  ২৭নং ওয়ার্ড চাপাতলী  এলাকায় সাহেলা ট্রেডিং মাস কিং কয়েল কারখানায় অবাধে তৈরি হচ্ছে বিষাক্ত মশার কয়েল। সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাশে মশার কয়েল কারখানা তৈরি হওয়ার কারনে কয়েল তৈরির বিষাক্ত ক্যামিকেল র্দূগন্ধে স্বাস্থ্যে ঝুকিতে পরতে হচ্ছে ক্ষুদে শিক্ষার্থীরা। সরকারি স্কুলের পাশে  কারখানার অনুমতি দেয়ায় সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন এলাকাবাসী।   
সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, চাপাতলী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় সংলগ্ন নাসিক ২৭ নং ওয়ার্ড চাপাতলী এলাকায় অবস্থিত সাহেলা ট্রেডিং মাস্ কিং কয়েল নামে  মশার কয়েল কারখানা। এ কারখানার বিষাক্ত বায়ুদুষনে পরিবেশ বির্পযসহ নানা  রোগে আক্রান্ত হচ্ছে  শিক্ষার্থীসহ এলাকাবাসী। এ ছাড়াও  অবৈধ ভাবে গ্যাস সংযোগ দিয়ে শুকানো হচ্ছে মশার কয়েল । ফ্যাক্টরীর পাশে থাকা এক বাসিন্দারা  বলেন, ফ্যাক্টরীর  ভেতর থেকে বিষাক্ত প্রবাহ আমাদের নিশ^াস সাথে মিশে যায়। এতে আমাদের শ^াস নিতে অনেক কষ্ট হয়।  স্কুলের পাশে  এ কারখানা গড়ে তুলায় ব্যপক স্বাস্থ্যঝুকিতে পড়েছে কোমলমতি শিক্ষার্থীরা। কারখানার ব্যবস্থাপক শহিদুল ইসলাম জানান, পরিবেশ অধিদপ্তরের ছাড়পত্র আছে। স্থানীয় কাউন্সিলর অনাপত্তি সার্টিফিকেট দিয়েছেন।  
নাসিক ২৭ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর কামরুজ্জামান বাবুল জানান,  আমরা অনাপত্তি সার্টিফিকেট দিয়েছি।  কিন্ত কতৃপক্ষকে সরকারি নিয়ম  মেনে চলার  শর্ত  দেয়া হয়েছে।  
বন্দর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মিন্টু বেপারী জানান, বন্দর উপজেলায় গড়ে উঠা বিষাক্ত ক্যামিকেল মিশ্রিত মশার কয়েল কারখানাগুলোতে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে সীলগালা করে দেয়া হচ্ছে।  এসব কারখানার বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম