Fri, 17 Nov, 2017
 
logo
 

কাশিপুর জোড়া খুন: ১০নং আসামী রাজন গ্রেফতার

ফতুল্লা করেসপন্ডেন্ট: ১৫ অক্টোবর ভোর সাড়ে ৫টায় কাশিপুরে আলোচিত জোড়া খুনের মামলার এক আসামীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তদন্তকারী অফিসার ইন্সপেক্টর (অপারেশন) জনাব মজিবুর রহমান কাশিপুর খিল মার্কেট এলাকা হতে উক্ত মামালার এাজাহারনামীয় ১০নং আসামী মো. মোজাম্মেল হক রাজন (৩২)কে গ্রেফতার করে। রাজনের পিতা মোঃ সিরাজ মিয়া।

উল্লেখ্য যে, তুহিন হাওলাদার মিল্টন (৩৫) ও পারভেজ (২৪)দ্বয় ফতুল্লা থানাধীন কাশিপুর এলাকার মাদক নিয়ন্ত্রক, সন্ত্রাসী ও ভূমি দস্যূ জাহাঙ্গীর ব্যাপারী গ্রুপের সহযোগী হিসাবে ছিল। তাদের মধ্যে উক্ত মাদক ব্যবসা ও অন্যান্য অপরাধমূলক কর্মকান্ড এবং এলাকায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ভিকটিমদ্বয় ও জাহাঙ্গীর ব্যাপারী দুইটি গ্রুপে বিভক্ত হয়ে যায়। তাদের একটি গ্রুপের নেতৃত্ব দেয় জাহাঙ্গীর ব্যাপারী ও অন্য গ্রুপের নেতৃত্ব দেয় ভিকটিম তুহিন হাওলাদার মিল্টন। যার ফলে জাহাঙ্গীর ব্যাপারীর গ্রুপ এবং ভিকটিম তুহিন হাওলাদার মিল্টন গ্রুপের মধ্যে অন্তর্দন্দ চরম আকার ধারণ করে। যার প্রেক্ষিতে গত ৮ অক্টোবর ১১টায় তুহিন হাওলাদার মিল্টন এর নেতৃত্বে জাহাঙ্গীর ব্যাপারীর গ্রুপের সদস্য বাপ্পিকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে গুরুতর জখম করে। উক্ত ঘটনার জের ধরিয়া ধৃত আসামী মোঃ মোজাম্মেল হক রাজন ও মামলার এজাহারনামীয় অন্যান্য আসামীগণ ১২ অক্টোবর রাত সাড়ে ৮টা তুহিন হাওলাদার মিল্টন (৩৫) এর ভাড়াটিয়া বাসায় হামলা করে ব্যাপক তান্ডব চালায়। অতঃপর সোয়া ৯টায় মিল্টন কাশিপুর খিলমার্কেটস্থ হোসাইনি নগর জনৈক রাজিবের রিক্সার গ্যারেজের উত্তর পূর্ব কোনে একটি কক্ষে অবস্থান করাকালে রাজন ও এজাহারনামীয় সহ অজ্ঞাতনামা পলাতক আসামীগণ অতর্কিতভাবে তুহিন হাওলাদার মিল্টন (৩৫) ও পারভেজ (২৪)দ্বয়ের উপর হামলা করে। আসামী মো. মোজাম্মেল হক রাজন সহ তাহার সহযোগীগণ ভিকটিমদ্বয়কে উপোর্যপুরি ধারালো অস্ত্র দিয়া মাথা সহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে কোপাইয়া গুরুতর রক্তাক্ত জখম করিয়া মৃত্যু নিশ্চিত করে। অতঃপর ভিকটিমদ্বয়কে আগুনে পোড়াইয়া হত্যার সাক্ষ্য প্রমাণ নষ্ট করার উদ্দেশ্যে ধৃত আসামী সহ সকল আসামীগণ ঘটনাস্থল ত্যাগ করার পূর্ব মুহুর্তে উক্ত গ্যারেজে আগুন লাগাইয়া দিয়া চলিয়া যায়।

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম