Sat, 16 Dec, 2017
 
logo
 

দু-পক্ষ মুখোমুখি পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ

বন্দর করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: বন্দরের মুছাপুর ইউনিয়নের শাসনেরবাগ এলাকায় ইট ভাটার জায়গা জোড় পূর্বকভাবে দখল করাকে কেন্দ্র করে এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে।

বিএনপি- জামায়াতের দোষর শাহাদাৎ, আমির, নূরুল ইসলাম নুরুসহ ২০/২৫ জন শ্রমিক ও ভাড়াটিয়া গুন্ডা বাহিনী নিয়ে প্রকৃত জায়গার মালিক মোঃ আলম মিয়া, মোতালেব, আমির  হোসেন ও শাহালমকে লাঞ্চিত করার চেষ্টা চালায়। এ ঘটনায় থানায় অভিযোগ হয়েছে। কামতাল তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ মোস্তাফিজুর রহমানসসহ সঙ্গীয় ফোর্সের উপস্থিতিতে নুরু বাহিনী ক্ষিপ্ত হয়। পুলিশের উপস্থিতিতে তাদের উত্তেজনা নিয়ে এলাকায় মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে।
সূত্র মতে, বন্দরের শাসনেরবাগ এলাকায় মামা- ভাগিনা ইট ভাটার জায়গা জোড়  পূর্বকভাবে দখলের চেষ্ঠা চালাচ্ছে সরদার ইঠ ভাটার নুরু, শাহাদাৎ, আমিররা। গত ২ দিন পূর্বে গভীর রাতে তারা মামা- ভাগিনার জায়গায় জোড় পূর্বক ভাবে ঘর তুলে। ঘর তুলাকে কেন্দ্র করে এলাকায় চরম উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। গতকাল বুধবার সকালে মামা- ভাগিনা ইট ভাটার মোঃ আলম মিয়া, মোতালেব মিয়া, আমির হোসেন, শাহালম মিয়া মিলে সরদার ইট ভাটায় যায়। তাদের জায়গা হতে ঘর সরানোর কথা বললেই বিএনপির নেতা শাহাদাত, আমির হোসেন, জামায়াত ইসলামীর নেতা ও অথের্র যোগানদাতা নূরুল ইসলাম নুরুসহ ২০/২৫ জন শ্রমিক মিলে তাদের উপর ক্ষিপ্ত হয়। কামতাল তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ মোস্তাফিজুর রহমানের উপস্থিতিতে সরদার ইট ভাটার লোকজন সন্ত্রাসীদের মত ব্যবহার করে। এ বিষয়ে কামতাল কেন্দ্রের  ইনচার্জ মোস্তাফিজুর রহমান জানান, ইট ভাটা নিয়ে অপ্রিতিকর ঘটনা যাতে না ঘটে সেজন্য সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে যাই এবং পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ আনি। ওসিকে বিষয়টি জানানো হয়েছে। উভয় পক্ষকে কাগজ নিয়ে উপস্থিত হওয়ার নির্দেশ দেয়া  হয়েছে বলে মোস্তাফিজুর রহমান জানান।

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম