Mon, 23 Oct, 2017
 
logo
 

কাঁচপুরের ঘটনায় বিএনপির ১’শ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা


সোনারগাঁ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ারসহ নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির প্রতিবাদে কাঁচপুর মোড়ে মঙ্গলবার দুপুরে সোনারগাঁ স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি সালাউদ্দিন সালুর নেতৃত্বে মিছিলে পুলিশের সঙ্গে নেতাকর্মীদের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনায় শতাধিক নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনায় তিন পুলিশ সদস্যসহ ৪জন আহত হয়। এসময় দুটি ককটেলসহ দুই স্বেচ্ছাসেবক দলের কর্মীকে গ্রেফতার করে পুলিশ। গতকাল বুধবার বিকেলে সোনারগাঁ থানার উপ-পরিদর্শক(এসআই) মনিরুজ্জামান বাদী হয়ে এ মামলা দায়ের করেন। পরে গ্রেফতারকৃতদের নারায়ণগঞ্জ আদালতে পাঠানো হয়েছে।
সোনারগাঁ থানায় দায়ের করা মামলা থেকে জানা যায়, বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াসহ নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করে আদালত। প্রতিবাদে সোনারগাঁ থানা স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি সালাউদ্দিন সালুর নেতৃত্বে বিএনপির নেতাকর্মীরা ঢাকা-চট্টগ্রাম-মহাসড়কের কাঁচপুর মোড়ে মঙ্গলবার দুপুরে মিছিল বের করে। মিছিলে সোনারগাঁ থানা পুলিশ বাঁধা দিলে পুলিশের সঙ্গে শুরু হয় ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া। মিছিল চলাকালে বিএনপির নেতাকর্মীরা ৪-৫টি ককটেল বিষ্ফোরণ ঘটায়। বিএনপির নেতাকর্মীদের ইটপাটকেলে সোনারগাঁ থানার এসআই মনিরুজ্জামান, কনস্টেবল আলমগীর ও ফয়সালসহ ৪ পুলিশ সদস্য আহত হয়। মিছিল থেকে দুটি লাল কসটেপে মোড়ানো ককটেল উদ্ধার করে পুলিশ। এসময় শাহজাহান ও সাখাওয়াত নামের দুই বিএনপি কর্মীকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত শাহজাহান সিদ্ধিরগঞ্জের জালকুড়ী এলাকার মৃত তাহের আলীর ছেলে এবং সাখাওয়াত একই থানার কদমতলী গ্রামের ইউনুস মোল্লার ছেলে। দুজনেরই স্বেচ্ছাসেবক দলের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত।
সোনারগাঁ থানার ওসি (অপারেশন)  সোয়েব খাঁন বলেন, কাঁচপুরে বিএনপির নেতাকর্মীরা আকস্মিকভাবে পুলিশের উপর আক্রমন করে পুলিশের সরকারী কাজে বাঁধা দেয়। তারা পুলিশের উপর ইট পাটকেল নিক্ষেপ করে। তাছাড়া ককটেল ফাটিয়ে আতংক সৃষ্টি করার কারনে বিএনপির নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মামলা নেওয়া হয়েছে। গ্রেফতারকৃত আসামীদের নারায়ণগঞ্জ আদালতে পাঠানো হয়েছে।

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম