Mon, 10 Dec, 2018
 
logo
 

বর্তমান সরকার অবাধ তথ্য প্রবাহে বিশ্বাসী: মেনন

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: সমাজকল্যান মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন বলেছেন, দেশ এগিয়ে চলছে এবং এগিয়েই যাবে। মানুষের যে অফুরান শক্তি, সেই শক্তি মানুষকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে। সেই এগিয়ে যাবার সহায়ক হিসেবে অনলাইনসহ সকল গনমাধ্যমকে অগ্রনী ভুমিকা পালন করতে হবে। বর্তমান সরকার দেশের কল্যাণ ও উন্নয়নের জন্য কাজ করে যাচ্ছে। বর্তমান সরকার অবাধ তথ্য প্রবাহে বিশ্বাসী। সাংবাদিকরা বস্তুনিষ্ঠ লেখনীর মাধ্যমে দেশের উন্নয়নে ভূমিকা রাখবে বলে প্রত্যাশা করি।


মঙ্গলবার সকালে নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবে অনলাইন নিউজ পোর্টাল ‘ প্রেস নারায়ণগঞ্জ’ এর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, দেশে গনমাধ্যমের ব্যাপক বিস্তার রয়েছে। শুধু তাই নয়, প্রযুক্তির মাধ্যমে এর ব্যপ্তি আরো দীর্ঘায়িত হচ্ছে। সেক্ষেত্রে প্রযুক্তির মাধ্যমে যে গনমাধ্যমের ব্যবহার এবং তা খুবই পজেটিভ দিক বলে আমি মনে করি। কারণ এখন খুব দ্রুতই আমাদের তথ্য পৌছে দিতে হয়। যেমন নেপালে ভয়াবহ বিমান দুর্ঘটনা ঘটার পরপরই আমাদের হাতে তথ্য ছবি এসে পৌছে গেছে। এটি শুধু আমাদের দেশে নয়, সারাবিশ্বেই অনলাইন ভিত্তিক গনমাধ্যম রয়েছে। এই প্রযুক্তিকে ব্যবহার করে যে প্রতিষ্ঠান আমাদের গনমাধ্যম সেবা দিয়ে যাবে আমাদের দায়িত্ব সেখানে বস্তুনিষ্ঠ তথ্য প্রদানে তাদের সহায়তা করা ।
মন্ত্রী বলেন, আমাদের দেশে অনেক গনমাধ্যম কোন ব্যক্তির পক্ষে বিপক্ষে কাজ করে থাকে সেটা জাতীয় কিংবা কোন শহরেও হয়ে থাকে, তবে আমি বলব ‘প্রেস নারায়ণগঞ্জ’ তার উর্ধ্বে উঠে জনগন ও পাঠকের কাছে বিশ্বাস যোগ্য হয়ে উঠবে। এখন এই সময়ে যে কোন কথা ইচ্ছে করলেই লিখে দেয়া যায়, এর যেমন ভালো দিক আছে এমন মন্দ দিকও রয়েছে। তবে সরকার অনেক সময় সোস্যাল মিডিয়াসহ অনেক গনমাধ্যাম বিশেষ কারণে বাধ্য হয়ে সাময়িক ভাবে বন্ধ করে দেয়। বিশেষ করে ফেইসবুকে মিথ্যা তথ্য ছড়িয়ে যখন দেশের ক্ষতি হবার সম্ভাবনা থাকে। যেমন শ্রীলঙ্কায় সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা ছড়িয়ে যাবার ফলে সরকার সেখানে ৩ দিন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম বন্ধ রেখেছিল। যদি এই গনমাধ্যম দেশ ও জনগনের সুবিধা দিতে না পারে কিংবা কোন ব্যক্তি কিংবা দলের হয়ে কাজ করে তাহলে কখনোই তা জনগনের কাছে জনপ্রিয় থাকবে না এবং বিশ্বাসযোগ্য হবেনা।

আমি জানি এখন বহু ধরনের অনলাইন নিউজ পোর্টাল বের হচ্ছে, সরকার এরজন্য নীতিমালা তৈরী করছে। আশা করছি সেই নীতিমালা তৈরী হলে ‘প্রেস নারায়ণগঞ্জ’ সেই নীতিমালা মেনে সামনের দিকে এগিয়ে যাবে। গনমাধ্যমের স্বাধীনতা নিয়ে অনেক আলোচনা হচ্ছে। তথ্যপ্রযুক্তি আইন নিয়ে আলোচনা সমালোচনা হচ্ছে, এনিয়ে সরকারের ভেতরেও আলোচনা হচ্ছে যাতে কোনভাবেই মত প্রকাশের ক্ষেত্রে কোন বাঁধা হয়ে না দাঁড়ায়। বাংলাদেশ এগিয়ে চলছে এবং বাংলাদেশ এগিয়েই যাবে। মানুষের যে অফুরান শক্তি, সেই শক্তি মানুষকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে। সেই এগিয়ে যাবার সহায়ক হিসেবে অনলাইন ও সকল গনমাধ্যমকে অগ্রনী ভুমিকা পালন করতে হবে। আমি এই পত্রিকার ভবিষ্যৎ সাফল্য কামনা করছি, এবং আমাকে আমন্ত্রিত করার জন্য ধন্যবাদ জানিয়ে শেষ করছি।

প্রেস নারায়ণগঞ্জ এর সম্পাদক বিল্লাল হোসেন রবিনের সভাপতিত্বে অন্যানের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আনোয়ার হোসেন, নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি মাহবুবুর রহমান মাসুম, নারায়ণগঞ্জ কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ ফজলুল হক রুমন রেজা, আওয়ামীলীগের জাতীয় পরিষদের সদস্য অ্যাডভোকেট আনিসুর রহমান দিপু, জাতীয় শ্রমিক লীগের শ্রমিক কল্যান বিষয়ক সম্পাদক আলহাজ্ব কাউছার আহমেদ পলাশ, নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এটিএম কামাল, নারায়ণগঞ্জ শহর যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আলী আহম্মদ রেজা উজ্জল, নারায়ণগঞ্জ নাগরিক কমিটির সভাপতি অ্যাডভোকেট এবি সিদ্দিক, সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহমান, জেলা বাসদের সমন্বয়ক নিখিল দাস, জেলা সিপিবির সভাপতি হাফিজুল ইসলাম, জেলা ওয়াকার্স পাটির সাধারণ সম্পাদক হিমাংশু সাহা, গণসংহতি আন্দোলনের নারী নেত্রী পপি রানী সরকার, সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক ধীমার সাহা জুয়েল প্রমুখ।

উপস্থিত ছিলেন, জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ডিএসবি) মোঃ ফারুক হোসেন, বিএমএর নারায়ণগঞ্জ জেলার সভাপতি আলহাজ্ব ডা. শাহনেওয়াজ চৌধুরী, নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সহসভাপতি অ্যাডভোকেট সাখাওয়াত হোসেন খান, নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি ও দৈনিক শীতলক্ষার সম্পাদক আরিফ আলম দিপু, দৈনিক সোজা সাপটার সম্পাদক ও প্রকাশক আবু সাউদ মাসুদ, জেলা সংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি আব্দুস সালাম, নারায়ণগঞ্জ সাংবাদিক ইউনিয়নের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং লাইভ নারায়ণগঞ্জ এর প্রধান নির্বাহী ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মদ কামাল হোসেন, বিটিভির জেলা সংবাদদাতা মাহফুজুর রহমান, সমকালের জেলা প্রতিনিধি এম এ খান মিঠু, কেন্দ্রীয় ওয়াকার্স পাটির বিকল্প সদস্য জাকির হোসেন, জেলা ওয়াকার্স পাটির সভাপতি হাফিজুর রহমান, গণসংহতি আন্দোলনের জেলা সমন্বয়ক তরিকুল সুজন, সদস্য সচিব অঞ্জন দাস, সমগীত কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি অমল আকাশ, কবি ছড়াকার আহমেদ বাবলু, গার্মেন্টস শ্রমিক ফন্ট নারায়ণগঞ্জ জেলার সেক্রেটারী জাহাঙ্গীর আলম গোলক, ফটো জার্নালিষ্ট এসোসিয়েশনের নারায়ণগঞ্জ জেলার সভাপতি হাবিবুর রহমান শ্যামল, দ্যা রিপোর্ট এর জেলা প্রতিনিধি মামুন মিয়া, ডেইলী স্টারের জেলা প্রতিনিধি সানি সাহা, আরটিভির জেলা প্রতিনিধি শফিকুল ইসলাম সোহেল, ফজলুল হক উকিল ফাউন্ডেশনের সাধারণ সম্পাদক মকসুদুর রহমান জাবেদ, পুলিশ পরিদর্শক আক্তার উজ জামান, যুগের চিন্তা ২৪ ডটকমের স্টাফ রিপোর্টার শামীমা রিতা প্রমুখ। সার্বিক তত্তাবধানে ছিলেন, প্রেস নারায়ণগঞ্জ এর প্রকাশক ফখরুল ইসলামের নেতৃত্বে প্রেস নারায়ণগঞ্জ এর সকল সংবাদকর্মীবৃন্দ।

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম