Wed, 24 Oct, 2018
 
logo
 

সিটি করপোরেশন ও প্রশাসনের যৌথ সিন্ধান্ত : বঙ্গবন্ধু সড়ক ছাড়া হকারদের বসার অনুমতি

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: নগরীর প্রধান সড়ক ‘বঙ্গবন্ধু সড়ক’ ছাড়া সিরাজউদ্দৌলা সড়ক, সলিমুল্লাহ সড়ক, চেম্বার রোড ও খানপুর হাসপাতালের সামনে সড়কে সাময়িকভাবে হকার বসার অনুমতি মিলেছে।

সিটি করপোরেশন, পুলিশ প্রশাসন ও জেলা প্রশাসনের যৌথ সভায় এই সিন্ধান্ত হয়েছে বলে জানা গেছে। তবে তাদের এই সিন্ধান্ত মানতে রাজী নয় হকাররা।

নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার মইনুল হক জানান, ‘বুধবার দুপুরে  সিটি করপোরেশনের মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভীর সঙ্গে জেলা প্রশাসকের প্রতিনিধি হিসেবে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক জসিম উদ্দিন হায়দার ও পুলিশ সুপারের প্রতিনিধি অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফারুক হোসেনের বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

তিনি আরো জানান, নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন কার্যালয়ে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।’ বৈঠকে মেয়র আইভী জানিয়েছেন, নগরীর প্রধান সড়ক বঙ্গবন্ধু সড়ক ছাড়া অন্য সড়কে হকার বসলে সিটি করপোরেশনের কোনো আপত্তি নেই।’ সাময়িক সময়ের জন্য হকারদের শীতের কাপড় বেচাকেনার জন্য এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।  

এ বিষয়ে হকার্স আন্দোলনের নেতা ও নারায়ণগঞ্জ জেলা কমিউনিস্ট পাটির্র সভাপতি  হাফিজুল ইসলাম জানান, বুধবার দুপুর আড়াইটার দিকে জেলা প্রশাসক রাব্বি মিয়া  হকার নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করেন। বৈঠকে জেলা প্রশাসক জানান,  জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন ও সিটি করপোরেশন বৈঠক করে সিদ্ধান্ত নিয়েছে, বৃহস্পতিবার (১৮ জানুয়ারি) বিকাল পাচঁটা  থেকে রাত দশটা পর্যন্ত বঙ্গবন্ধু সড়ক ছাড়া চেম্বার রোড, কালিবাজার সিরাউদ্দৌলা সড়ক, সলিমুল্লাহ সড়ক ও খানপুর হাসপাতালের সামনের সড়কে হকার বসতে পারবে। ২৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত সাময়িকভাবে এ সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করা হবে।   

এদিকে এই সিন্ধান্তে ক্ষোভ দেখিয়েছেন হকার্সরা। তাদের মতে, আমরা আগেই এই সিন্ধান্ত নিতে পারতাম। আমাদেরকে আগেও বলা হয়েছে এমন কথা। তাদের এই সিন্ধান্তের মাধ্যমে হকারদের মধ্যে বিভক্তি করার চেষ্টা করছে। আমরা এত আন্দোলন সংগ্রাম করেছি সবাই মিলে একসাথে বসার জন্য। একপক্ষ বসবে অন্য বসতে পারবে না এটা হতে পারে না।

হকারদের এসব দাবির সাথে একাত্মতা পোষণ করে হকার্স আন্দোলনের অন্যতম নেতা রহিম মুন্সি বলেন, বসলে আমরা সবাই একসাথে বসবো। যতদিন পর্যন্ত না আমরা একসাথে বসতে না পারবো ততদিন পর্যন্ত আন্দোলন করে যাবো।

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম