Mon, 23 Oct, 2017
 
logo
 
 

 
 
2017-10-22-16-12-18স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণঘঞ্জ: নারায়ণগঞ্জ শহরের গণবিদ্যা নিকেতন উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীর ছাত্রী উম্মে হাবিবা আক্তার শ্রাবণীকে পরীক্ষার হল থেকে মারধর করে টেনে হিচরে বের করে মারধর করার পর স্কুল মাঠে কান ধরিয়ে দাড় করিয়ে রেখে আত্মহত্যা করতে বাধ্য করার ঘটনায় দায়ের করা মামলায় অভিযোগ পত্র দাখিল করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) পরিদর্শক...
 
সর্বশেষ শিরোনাম
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 

 
 
 
 
 

 
শহরজুড়ে

 

রাজনীতি
 
জেলাজুড়ে

 

অর্থনীতি

বিশেষ প্রতিবেদন
 
 
 
 
 
 
 
 

শিক্ষা
 
স্বাস্থ্য
 
ক্রিড়া
 
ধর্ম
 
জনপ্রতিনিধি
 
সাক্ষাতকার
 

ক্যারিয়ার
 
বিনোদন
 
সাহিত্য
 
মন্তব্য কলাম
 
আইন-আদালত
 
লাইফ স্টাইল
 
শুভ কামনা
 
দুর্ভোগ
 
জরুরি প্রয়োজনে
 
এ্যালবাম
Previous ◁ | ▷ Next
 
মিডিয়ায় না’গঞ্জ
কোথায় কি
 
 

ক্রয়-বিক্রয়
 
ভাড়া
 
ভ্রমন
 
ইতিহাস-ঐতিহ্য
 
 
 
 
 

একুশের বইমেলায় তাহমীদ আবরারের ‘থিউরি অব ডিজিটাল কান্ট্রি’

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ : প্রতি বছরই ফেব্রুয়ারি মাসজুড়ে শুরু হয় ২১ শে বইমেলা। বাংলা দেশের প্রতিটা জেলা থেকে নবীন ও প্রবীণ লেখকরা মিলিত হয় বই মেলায়। পাঠকরাও প্রিয় লেখকদের সাথে কথা বলার সুযোগ পেয়ে যায় এর মাধ্যমে।

বিভিন্ন প্রান্ত থেকে বইমেলায় বিভিন্ন লেখকদের লেখা বই প্রতিবারের মত এবারও প্রকাশিত হয়েছে। এরমধ্যে আছে নারায়ণগঞ্জের লেখকদের বইও। আমরা ‘লাইভ নারায়ণগঞ্জ’র এই প্রতিবেদনের মাধ্যমে জানিয়ে দেব নারায়ণগঞ্জ জেলার কোন লেখকের কোন বই বের হয়েছে, পাওয়া যাবে কোন স্টলে।

এবারের একুশে বইমেলায় প্রকাশিত হয়েছে নারায়ণগঞ্জের তরুণ উদিয়মান লেখক তাহমীদ আবরারের ৬ষ্ঠ গ্রন্থ সায়েন্স ফিকশন ‘থিউরি অব ডিজিটাল কান্ট্রি’। এটি সপ্তডিঙা থেকে প্রকাশিত হয়েছে। বইটি বাংলা এবং ইংরেজি ভাষায় লিখেছেন লেখক।

এই বইটির অলংকরণ করেছেন সুজিৎ কর্মকার, প্রচ্ছদ করেছেন লেখক নিজেই, প্রকাশক নজরুল ইসলাম, পরিবেশক প্রতিভা প্রকাশ। বইটি পাওয়া যাচ্ছে একুশে বইমেলার সপ্তডিঙার ৫২১ ও ৩১ নং স্টলে।

তার আগের প্রকাশিত গ্রন্থ ‘বৈশাখী’, ‘বিড়াল যখন সিংহাসনে’, ‘স্মৃতির আকাশ’, ‘হৃৎ কলমের ছোঁয়া’ এবং একুশে বইমেলা ২০১০ এ প্রকাশিত ‘কালো মেঘ কালো ছায়া’র প্রথম মুদ্রণ প্রকাশ হওয়ার পর মুদ্রিত কপি শেষ হয়ে যাওয়ায় মেলার শেষে দ্বিতীয় মুদ্রণ প্রকাশিত হয়।

লেখক সম্পর্কে জিএম ফারুক বলেন, তাহমীদ আবরার ২০০২ সাল থেকে চেইঞ্জেস স্কুলের আইটি ও গ্রাফিক্স ডিজাইনার হিসাবে কাজ করে। সে কোরআন-এ হাফেজ, বিগত ১০ বছর যাবত তার সায়েন্স ফিকশন ও কবিতার বই গ্রন্থমেলায় বের হচ্ছে। এই বছরও তার দুইটা বই বের হয়েছে।

তিনি বলেন, সে খুবই চমৎকার লিখে। একই সাথে চেইঞ্জেস স্কুলের শিক্ষার্থীদের কবিতা লেখা ও সাহিত্যের প্রতি আগ্রহি করে তোলার ব্যাপারেও ওর বিরাট ভূমিকা কাজ করে।

লেখক তাহমীদ আবরারে উত্তোরোত্তর সমৃদ্ধি কামনা করে জিএম ফারুক বলেন, আমি প্রত্যাশা করছি বাংলাদেশের বরণ্যে ও বিশিষ্ট লেখক, কবি ও সাহিত্যিকদের মত একটা সময় এই তাহমীদ আবরারকে নিয়ে আমরা গর্ব বোধ করতে পারবো।

লেখক তাহমীদ আবরার বলেন, চির শ্রদ্ধাভাজন ব্যক্তিত্ব নারায়ণগঞ্জের ঐহিত্যবাহী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান চেইঞ্জেস স্কুলের সম্মানিত চেয়ারম্যান ও বিকেএমইএ এর সম্মানিত ভাইস প্রেসিডেন্ট (অর্থ) জনাব জিএম ফারুক স্যারের হাতে তুলে দিয়েছি একুশে বইমেলা ২০১৭ এ সপ্তডিঙা থেকে প্রকাশিত আমার লেখা সায়েন্স ফিকশন ‘থিউরি অব ডিজিটাল কান্ট্রি’।