Thu, 18 Jan, 2018
 
logo
 
 

 
 
2018-01-17-16-07-15স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সাংসদ শামীম ওসমান বলেছেন, মেযর আইভী দলের বিরুদ্ধে কথা বলেছে। তারপরেও আমাদের দলতো উনাকে (আইভী) খুশি করার চেষ্টা করছে। মনোনয়ন দিয়েছে। উপমন্ত্রী পদ মযাদা দেয়া হয়েছে। এখন দলের কাছে আমার প্রশ্ন? দল কী চায়। যদি এটা চায় শামীম ওসমানকে দল ছেড়ে দিতে, ছেড়ে দিক আমার কোন আপত্তি নাই। তবুও ভালো থাকুক...
 
সর্বশেষ শিরোনাম
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 

 
 
 
 
 

 
শহরজুড়ে

 

রাজনীতি
 
জেলাজুড়ে

 

অর্থনীতি

বিশেষ প্রতিবেদন
 
 
 
 
 
 
 

 

 

 

 

শিক্ষা
 
স্বাস্থ্য
 
ক্রিড়া
 
ধর্ম
 
জনপ্রতিনিধি
 
সাক্ষাতকার
 

ক্যারিয়ার
 
বিনোদন
 
সাহিত্য
 
মন্তব্য কলাম
 
আইন-আদালত
 
লাইফ স্টাইল
 
শুভ কামনা
 
দুর্ভোগ
 
জরুরি প্রয়োজনে
 
এ্যালবাম
Previous ◁ | ▷ Next
 
মিডিয়ায় না’গঞ্জ
কোথায় কি
 
 

ক্রয়-বিক্রয়
 
ভাড়া
 
ভ্রমন
 
ইতিহাস-ঐতিহ্য
 
 
 
 
 

বর্জ্য নিয়ে এবার সিটি করপোরেশনের মুখোমুখি হতে যাচ্ছে উপজেলা!

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ : কুতুবপুর ইউনিয়নের পানি নিস্কাশনের কালবার্ট বন্ধ করে সিটি করপোরেশন ময়লা ফেলার বিষয়টি উপজেলা কমিটির সভায় বিষয়টি উপস্থাপন করবেন সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন চেয়ারম্যান মনিরুল আলম সেন্টু।


গত ১২ তারিখ লাইভ নারায়ণগঞ্জে ও পরের দিন জেলার বিভিন্ন পত্রিকায় এ ঘটনাটি সংবাদ আকারে প্রকাশ হলে স্থানটি সরেজমিন পরিদর্শন করে একথা জানান তিনি।

পরে লাইভ নারায়ণগঞ্জের সাথে আলাপকালে মনিরুল আলম সেন্টু বলেন, আমি জালকুড়িতে ময়লা ফেলার স্থানে গিয়ে দেখে এসেছি। ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোডের নিচ দিয়ে বয়ে যাওয়া কালবার্টে ময়লা ফেলে বন্ধ করে রেখেছে সিটি করপোরেশন বর্জ্য ব্যবস্থাপনা শাখা। ফলে কুতুবপুর ইউনিয়নের বিভিন্ন স্থানে গত কয়েক বছর যাবত বেশি জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, আমি বিষয়টি উপজেলা কমিটির সভায় উপস্থাপন করবো। সেখানে যে সিদ্ধান্ত আসবে সে অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

জানা গেছে, ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোডের জালকুড়িতে গত ৩ বছরেরও বেশি সময় যাবত ময়লা ফেলছে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন। কিন্তু স্থানটিতে ময়লা ফেলার সঠিক কোনো দিক নির্দেশনা না থাকায় ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোডের নিচ দিয়ে বয়ে যাওয়া কালবার্টে ময়লা ফেলে বন্ধ করে রেখেছে সিটি করপোরেশন বর্জ্য ব্যবস্থাপনা।

সম্প্রতি লাইভ নারায়ণগঞ্জ সরেজমিনে দেখা এসেছে, খালে বাঁধ দেওয়ায় বৃষ্টি ও বর্ষার পানি নিষ্কাশন হচ্ছে না। কুতুবপুর ইউনিয়নের তক্কারমাঠ, লালখা, জালকুড়ি, নন্দলালপুর বিগত বছরগুলোর তুলনায় বেশি জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। দুর্ভোগ পোহাচ্ছে মানুষ। কারখানা ভারাট ছাড়াও সিটি করপোরেশন কর্তৃপক্ষ পাশ দিয়ে বয়ে যাওয়া খালে বাসাবাড়ির বর্জ্য ফেলে পরিবেশ নষ্ট করছে। ফলে যানবাহনে চলাচল কারিদের নাকে রোমাল চেপে চলাচল করতে হচ্ছে।